thank you for visit our site

The expansion of the British Empire in India – 1

0 8

ভারতে ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের প্রসার এর ওপরে কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর :

১। ভারতে ব্রিটিশ সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠার মূল কয়টি পর্যায় লক্ষ করা যায় ? উক্ত পর্যায়গুলির স্থপতি কারা ছিলেন?

উত্তরঃ ভারতে ব্রিটিশ সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠার মূলত ৪টি পর্যায় লক্ষ করা যায়।
উক্ত পর্যায়গুলির স্থপতিগণ হলেন ওয়ারেন হেস্টিংস (১৭৭২-১৭৮৫ খ্রিস্টাব্দে), লড
ওয়েলেসলি (১৭৯৮-১৮০৫ খ্রি.), লর্ড ময়রা (১৮১৩-১৮২৩ খ্রি.) এবং লর্ড ডালহৌসি (১৮৪৬-১৮৫৬ খ্রি.)।

২। অষ্টাদশ শতকের শেষার্ধে ভারতে প্রধান দেশীয় শক্তিগুলির নাম লেখাে। এদের মধ্যে সম্পর্ক কেমন ছিল?

উত্তরঃ অষ্টাদশ শতকের শেষার্ধে ভারতে প্রধান দেশীয় শক্তিগুলি হল মারাঠা, শিখ এবং দক্ষিণ ভারতের মহীশূর রাজ্য।

এদের মধ্যে সুসম্পর্ক ছিল না, সর্বদাই বিবাদ ও সংঘর্ষ লেগেই থাকত।

৩। প্রথম ইঙ্গ-মহীশূর যুদ্ধ কেন শুরু হয়েছিল? কোন্ সন্ধি দ্বারা এই যুদ্ধের অবসান ঘটে?

উত্তরঃ ১৭৬৭ খ্রিস্টাব্দে হায়দার আলি ইংরেজদের আশ্রিত কর্ণাটকের নবাবের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘােষণা করলে প্রথম ইঙ্গ-মহীশূর যুদ্ধের সূচনা ঘটে।

১৭৬৯ খ্রিস্টাব্দে মাদ্রাজের সন্ধি দ্বারা এই যুদ্ধের অবসান ঘটে।

৪। কত খ্রিস্টাব্দে এবং কাদের মধ্যে ম্যাঙ্গালােরের সন্ধি স্বাক্ষরিত হয়েছিল?

উত্তরঃ ১৭৮৪ খ্রিস্টাব্দে হায়দারপুত্র টিপু সুলতান এবং ইংরেজ ইস্ট-ইন্ডিয়া কোম্পানির মাদ্রাজ কর্তৃপক্ষের মধ্যে ম্যাঙ্গালােরের সন্ধি স্বাক্ষরিত হয়েছিল।

৫। তৃতীয় ইঙ্গ-মহীশূর যুদ্ধের মূল কারণ কী?

উত্তরঃ ১৭৮৯ খ্রিস্টাব্দে লর্ড কর্নওয়ালিশ হায়দরাবাদের নিজামের ইংরেজদের মিত্র রাজ্যের যে তালিকা দেন তাতে মহীশূরের নাম ছিল না। ফলে কুদ্ধ টিপু সুলতান ১৭৯০ খ্রিস্টাব্দে ইংরেজ মিত্ররাজ্য ত্রিবাঙ্কুর আক্রমণ করলে তৃতীয় ইঙ্গ-মহীশূর যুদ্ধের সূচনা ঘটে।

৬। শ্রীরঙ্গপত্তমের সন্ধি কবে এবং কাদের মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়েছিল?

উত্তরঃ শ্রীরঙ্গপত্তমের সন্ধি ১৭৯২ খ্রিস্টাব্দে স্বাক্ষরিত হয়েছিল।

এই সন্ধি এক পক্ষে মহীশূরের টিপু সুলতান এবং অন্যপক্ষে ইংরেজ, মারাঠা ও নিজামের মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়েছিল।

৭। চতুর্থ ইঙ্গ মহীশুর যুদ্ধের মূল কারণ কী ছিল?

উত্তরঃ ১৭৯৯ খ্রিস্টাব্দের জানুয়ারি মাসে গভর্নর জেনারেল লর্ড ওয়েলেসলি টিপুর কাছ একটি চরমপত্র পাঠিয়ে তাঁকে অধীনতামুলক মিত্ৰতা নীতি গ্রহণ করতে নির্দেশ দেন। টিপু এই
প্রস্তাব প্রত্যাখান করলে চতুর্থ ইঙ্গ-মহীশূর যুদ্ধ শুরু হয়ছিল।

৮। চতুর্থ ইঙ্গ-মহীশর যুদ্ধ কৰে শুরু হয়েছিল ? এই যুদ্ধে কে পরাজিত হন?

উত্তরঃ চতুর্থ ইঙ্গ-মহীশূর যুদ্ধ ১৭৯৯ খ্রিস্টাব্দে শুরু হয়েছিল। এই যুদ্ধে টিপু সুলতান পরাজিত ও নিহত হন।

৯। তৃতীয় পানিপথের যুদ্ধ কবে ও কাদের মধ্যে হয়েছিল?

উত্তরঃ তৃতীয় পানিপথের যুদ্ধ ১৭৬১ খ্রিস্টাব্দে হয়েছিল। এই যুদ্ধ মারাঠা পেশােয়া বালাজি বাজীরাও ও আফগানরাজ আহম্মদশাহ আবদালির মধ্যে হয়েছিল।

১০। সুরাটের সন্ধি কাদের মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়েছিল এবং কেন?

উত্তরঃ সুরাটের সন্ধি রাজ্যচ্যুত পেশােয়া রঘুনাথ রাও ও বােম্বাই-এর ইংরেজ কর্তৃপক্ষের মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়েছিল। রঘুনাথ রাও ইংরেজ কর্তৃপক্ষকে সলসেট ও বেসিন প্রদানের মাধ্যমে পেশােয়া পদ ফিরে পেতে সাহায্যের জন্য সুরাটের সন্ধি স্বাক্ষর করেছিলেন।

১১। সবাই সন্ধির (১৭৮২ খ্রিস্টাব্দ) দুটি শর্ত কি?

উত্তরঃ সবাই সন্ধি (১৭৮২ খ্রিস্টাব্দ) দ্বারা—(i) ইংরেজ কর্তৃপক্ষ মাধবরাও নারায়ণকে পেশােয়া বলে স্বীকার করে নেয়। (ii) রঘুনাথ রাওকে বার্ষিক তিন লক্ষ টাকা বৃত্তি দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়।

১২। অধীনতামূলক মিত্রতা নীতি প্রবর্তন করেন কে? কে প্রথম এই নীতি গ্রহণ করেন?

উত্তরঃ লর্ড ওয়েলেসলি অধীনতামূলক মিত্রতা নীতি প্রবর্তন করেন।

হায়দরাবাদের নিজাম সর্বপ্রথম অধীনতামূলক মিত্রতা নীতি গ্রহণ করেন।

১৩। কোন পেশােয়া সর্বপ্রথম অধীনতামূলক মিত্ৰতানীতি গ্রহণ করেন ? তিনি কোন সন্ধি দ্বারা অধীনতামূলক মিত্রতা নীতি গ্রহণ করেছিলেন?

উত্তরঃ পেশােয়া দ্বিতীয় বাজীরাও সর্বপ্রথম অধীনতামূলক মিত্রতা নীতি গ্রহণ করেছিলেন।

১৮০২ খ্রিস্টাব্দে বেসিনের সন্ধি দ্বারা তিনি এই নীতি গ্রহণ করেছিলেন।

১৪। পুনার সন্ধি কবে স্বাক্ষরিত হয়? এই সন্ধির ফলে কী হয়েছিল ?

উত্তরঃ ১৮১৭ খ্রিস্টাব্দে পুনার সন্ধি স্বাক্ষরিত হয়।

পুনার সন্ধির দ্বারা পেশােয়াপদ বিলুপ্ত করা হয় এবং দ্বিতীয় বাজীরাওকে ইংরেজ কোম্পানির বৃত্তিভােগীতে পরিণত করা হয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

English