Best Educational, Knowledgeable and Important site. Rail, WBCS, Bank, Government, SSC, PRIMARY AND UPPER PRIMARY job information site. চাকরির সেরা ঠিকানা ।

Stay Conneted

Story

Showing posts with label বাংলা. Show all posts
Showing posts with label বাংলা. Show all posts

Tuesday, 25 February 2020

Some Books and their Authors



Some Books and their Authors :


১। পুতুল নাচের ইতিকথা- মানিক
বন্দ্যোপাধ্যায়
২। জোছনা ও জননীর গল্প- হুমায়ুন আহমেদ
৩। পথের পাঁচালি- বিভূতিভূষণ
বন্দ্যোপাধ্যায়
৪। লোটা কম্বল- সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়
৫। পদ্মা নদীর মাঝি- মানিক
বন্দ্যোপাধ্যায়
৬। একাত্তরের দিনগুলি- জাহানারা
ইমাম
৭। দিবারাত্রির কাব্য- মানিক
বন্দ্যোপাধ্যায়
৮। কবি- তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়।
৯। আরন্যক- বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়
১০। চরিত্রহীন - শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়
১১। লালশালু- সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ
১২। অপরাজিত - বিভূতিভূষণ
বন্দ্যোপাধ্যায়
১৩। শ্রীকান্ত -শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়
১৪। চোখের বালি- রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
১৫। গণদেবতা - তারাশঙ্কর
বন্দ্যোপাধ্যায়
১৬। আলালের ঘরের দুলাল- প্যারিচাঁদ
মিত্র

১৭। হুতোম পেঁচার নকশা- কালী প্রসন্ন
সিংহ
১৮। দৃষ্টিপ্রদীপ - বিভূতিভূষণ
বন্দ্যোপাধ্যায়
১৯। সূর্যদীঘল বাড়ি- আবু ইসহাক
২০। নিষিদ্ধ লোবান- সৈয়দ শামসুল হক
২১। জননী- শওকত ওসমান
২২। খোয়াবনামা - আখতারুজ্জামান
ইলিয়াস
২৩। হাজার বছর ধরে- জহির রায়হান
২৪। তেইশ নম্বর তৈলচিত্র - আলাউদ্দিন
আল আজাদ
২৫। চিলেকোঠার সেপাই-
আখতারুজ্জামান ইলিয়াস

২৬। সারেং বউ- শহীদুল্লাহ কায়সার
২৭। আরোগ্য নিকেতন- তারাশঙ্কর
বন্দ্যোপাধ্যায়
২৮। প্রদোষে প্রাকৃতজন - শওকত আলী
২৯। খেলেরাম খেলে যা- সৈয়দ শামসুল
হক
৩০। রাইফেল রোটি আওরাত- আনোয়ার
পাশা
৩১। গঙ্গা- সমরেশ বসু
৩২। শঙ্খনীল কারাগার- হুমায়ুন আহমেদ
৩৩। নন্দিত নরকে- হুমায়ুন আহমেদ
৩৪। দীপু নাম্বার টু- মুহম্মদ জাফর ইকবাল
৩৫। মা- আনিসুল হক
৩৬। আট কুঠরি নয় দরজা- সমরেশ মজুমদার
৩৭। কড়ি দিয়ে কিনলাম- বিমল মিত্র
৩৮। মধ্যাহ্ন- হুমায়ূন আহমেদ।
৩৯। উত্তরাধিকার- সমরেশ মজুমদার
৪০। কালবেলা- সমরেশ মজুমদার
৪১। কৃষ্ণকান্তের উইল- বঙ্কিমচন্দ্র
চট্টোপাধ্যায়

৪২। সাতকাহন- সমরেশ মজুমদার
৪৩। গর্ভধারিণী - সমরেশ মজুমদার
৪৪। পূর্ব-পশ্চিম- সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়
৪৫। প্রথম আলো- সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়
৪৬। চৌরঙ্গী - শঙ্কর
৪৭। নিবেদিতা রিসার্চ ল্যাবরেটরি -
শঙ্কর
৪৮। দূরবীন - শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়
৪৯। শুন বরনারী- সুবোধ ঘোষ।
৫০। পার্থিব- শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়
৫১। সেই সময়- সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়
৫২। মানবজমিন - শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়
৫৩। তিথিডোর - বুদ্ধদেব বসু
৫৪। পাক সার জমিন সাদ বাদ- হুমায়ুন
আজাদ
৫৫। ক্রীতদাসের হাসি- শওকত ওসমান
৫৬। শাপমোচন - ফাল্গুনী মুখোপাধ্যায়
৫৭। মাধুকরী- বুদ্ধদেব গুহ
৫৮। দেশে বিদেশে- মুজতবা আলী
৫৯। আরেক ফাল্গুন - জহির রায়হান
৬০। কাশবনের কন্যা- শামসুদ্দিন আবুল
কালাম
৬১। বরফ গলা নদী- জহির রায়হান
৬২। গাভী বৃত্তান্ত- আহমদ ছফা
৬৩। বিষবৃক্ষ - বঙ্কিম চট্টোপাধ্যায়
৬৪। দৃষ্টিপাত- যাযাবর
৬৫। তিতাস একটি নদীর নাম- অদৈত
মল্লবর্মন
৬৬। কাঁদো নদী কাঁদো- সৈয়দ
ওয়ালীউল্লাহ

৬৭। শিবরাম গল্পসমগ্র
৬৮। জীবন ও রাজনৈতিক বাস্তবতা -
শহীদুল জহির
৬৯। আনন্দমঠ - বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়
৭০। নিশি কুটুম্ব- মনোজ বসু।
৭১। একাত্তরের যীশু- শাহরিয়ার কবির
৭২। প্রজাপতি - সমরেশ বসু
৭৩। নীলকণ্ঠ পাখির খোঁজে - অতীন
বন্দ্যোপাধ্যায়
৭৪। মাধুকরী - বুদ্ধদেব গুহ
৭৫। হুযুর কেবলা- আবুল মনসুর আহমেদ
৭৬। ওঙ্কার- আহমদ ছফা
৭৭। আমার দেখা রাজনীতির ৫০ বছর-
আবুল মনসুর আহমদ
৭৮। কত অজানারে- শঙ্কর
৭৯। ভোলগা থেকে গঙ্গা- রাহুল
সাংকৃত্যায়ন
৮০। টেনিদা- নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়
৮১। বিষাদ সিন্ধু- মীর মোশাররফ
হোসেন।
৮২। বিবর- সমরেশ বসু
৮৩। তারাশঙ্করের সব গল্প
৮৪। বুদ্ধদেব বসুর সব গল্প
৮৫। বনফুলের সব গল্প
৮৬। পরশুরামের সব গল্প
৮৭। কবর- মুনীর চৌধুরী
৮৮। কোথাও কেউ নেই- হুমায়ুন আহমেদ
৮৯। হিমু অমনিবাস - হুমায়ুন আহমেদ
৯০। মিসির আলী অমনিবাস- হুমায়ুন
আহমেদ
৯১। আমার বন্ধু রাশেদ- মুহম্মদ জাফর
ইকবাল
৯২। অসমাপ্ত আত্মজীবনী - জাতির জনক
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান
৯৩। শঙ্কু সমগ্র- সত্যজিৎ রায়
৯৪। মাসুদ রানা- কাজী আনোয়ার
হোসেন।
৯৫। ফেলুদা সমগ্র- সত্যজিৎ রায়
৯৬। তিন গোয়েন্দা- সেবা প্রকাশনী
৯৭। কিরীটী সমগ্র- নীহাররঞ্জন গুপ্ত
৯৮। কমলাকান্তের দপ্তর- বঙ্কিমচন্দ্র
চট্টোপাধ্যায়
৯৯। পথের দাবি- শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়
১০০। গোরা - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
১০১। শবনম- মুজতবা আলী
১০২। নৌকাডুবি - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
১০৩। আদর্শ হিন্দু হোটেল- বিভূতিভূষণ
বন্দ্যোপাধ্যায়

১০৪। বহুব্রীহি - হুমায়ুন আহমেদ
১০৫। দেবদাস - শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়
১০৬। মধ্যাহ্ন- হুমায়ুন আহমেদ
১০৭। বাদশাহ নামদার- হুমায়ুন আহমেদ
১০৮। বিজ্ঞানী সফদর আলীর মহা মহা
আবিস্কার- মুহম্মদ জাফর ইকবাল
১০৯। হাসুলিবাকের উপকথা - তারাশঙ্কর
বন্দ্যোপাধ্যায়
১১০। গল্পগুচ্ছ- রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
১১১। শেষ নমস্কার- সন্তোষ কুমার ঘোষ
১১২। হাঙ্গর নদী গ্রেনেড- সেলিনা
হোসেন
১১৩। আবু ইব্রাহিমের মৃত্যু- শহীদুল জহির
১১৪। সাহেব বিবি গোলাম- বিমল মিত্র
১১৫। আগুনপাখি- হাসান আজিজুল হক
১১৬। কেয়া পাতার নৌকো- প্রফুল্ল রায়
১১৭।পুষ্প ও বিহঙ্গ পিরাণ- আহমদ ছফা
১১৮। আনোয়ারা- নজীবর রহমান




         




Thursday, 14 November 2019

Name of the traditional dance of different states (বিভিন্ন রাজ্যের প্রচলিত নৃত্যের নাম)




Name of the traditional dance of different states (বিভিন্ন রাজ্যের প্রচলিত নৃত্যের নাম) :


১। পশ্চিমবঙ্গের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ ছৌ , যাত্রা , কাঠি , গম্ভীরা , ঢালি , মহল , কীর্তন ।

২। জম্মু ও কাশ্মীরের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ রাউফ , হিকাট , চাকরী , কুদডান্ডি নাচ , ডামালি ,হেমিসগাম্পা ।

৩। বিহারের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ যাতাযতীন , বিদেশিয়া ।

৪। ওড়িশার প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ ডালখই , ডান্ডনাটে , ঘুমরা , রনপা , ছাডায়া , ওড়িশি , সাভারি , বাহাকাওয়াটা ।

৫। মিজোরামের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?

উঃ চিরাও , বাঁশ নৃত্য , লাম , কুয়াল্লাম , চেরােকান ।

৬। মণিপুরের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ মহারাসসা , মণিপুরি , কাবুই ।

৭। উত্তরপ্রদেশের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ কথক , চাপ্পেলী , রাসলীলা , নওটাংকি , করণ , জইতা , কাজরী , কুমাওন ।


৮। অন্ধ্রপ্রদেশের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ ভিথিভাগবাথাম , ওট্টম থেডাল , কুচিপুডি , কোট্টাম , মােহিনীআট্টাম ।

৯। মধ্যপ্রদেশের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ পান্ডভানী , মাচা , লােটা ।

১০। পাঞ্জাবের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ গিড্ডা , ভাংড়া , ধামান , ডাফ ।

১১। হরিয়ানার প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ ঝুমুর , সয়াংগ , লুর , গাগর , খাের ।

১২। মেঘালয়ের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ নংক্ৰেম , লাহাে ।

১৩। হিমাচলপ্রদেশের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ মুঞ্জরা , গিড্ডা পারহাউন , কায়াঙ্গা ।

১৪। গুজরাটের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ টিপ্পানি , ডান্ডিয়ারাস , গারবা , রাসিলা , ভাবাই , গরমা

১৫। তামিলনাড়ুর প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ ভরতনাট্টম , কোলাট্টাম , কুম্মি , থেরুকোট্টু , তেরাতলি , কারাগাম , কাভাডি ।

১৬। গােয়ার প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ ফুগডি , ঢালাে , ডেকানি , মান্ডাে , কুম্বি।

১৭। মহারাষ্ট্রের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ তামাশা , দাহিকালা , লেজিম , লাবনী , কোলি , গাফা , নাকাতা ।

১৮। কর্ণাটকের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ ইয়কসােগানা , সুজ্ঞি , করগা , লাম্বি , কুনিথা ।


১৯। অসমের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ বিহু , ওংকিয়ানাট , নাটপূজা , কোঙ্গালি , তাবাল চোঙ্গলি
, বাগুরু ।

২০। কেরলের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ ওপান্না , কথাকলি , চাকিয়ারকুথু , ওট্টাম থুল্লাল ,মােহিনীঅট্টম , চাতিট্টি নাথাকাম , কাইকোট্টী কাল্লি , থেইয়াম, কোডীয়াট্টাম , মুডিভেট্ট , তুল্লাল , তাপ্পাত্রীকালি ,কৃষ্ণানাট্টাম ।

২১। রাজস্থানের প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ গানগাের , চামার গিনাদ , ঝুলনলীলা , কায়ান গা বাজাভাঙ্গা , খাইয়াল , ভাবাই , ঘুমর , পানিহারি , ছারি , ঝুমা , সুইসিনি , কাচ্চি গােরি ।

২২। ত্রিপুরার প্রচলিত নৃত্যগুলি কি কি ?
উঃ গরিয়া , ঝুম , বিজু , চের , হাই-হক , ওয়াঙ্গালা ।

২৩ । বিহু নৃত্যের ধরন কি কি ?
উঃ রঙ্গোলী , ভােগালী , কাঙ্গালী ।

২৪। গামবুট ড্যান্স কোথাকার প্রচলিত নৃত্য ?
উঃ সাউথ আফ্রিকা ।।

২৫। হিপ হপ ড্যান্স কোথাকার নৃত্য ?
উঃ উত্তর আমেরিকা







         




Monday, 11 November 2019

A few important bagdhara (কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বাগধারা)





A few important bagdhara (কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বাগধারা) :


বাগধারা শব্দের আভিধানিক অর্থ কথার বচন ভঙ্গি বা ভাব বা কথার ঢং। বাক্য বা বাক্যাংশের বিশেষ প্রকাশভঙ্গিকে বলা হয় বাগধারা।

বাক্যসহ ৫টি উদাহরণ :⬇️⬇️

  • আকাশকুসুম (অসম্ভব কল্পনা) - আকাশকুসুম ভেবে সময় নষ্ট করে লাভ নেই, বাস্তবে ফিরে এস।
  • আকাশ-পাতাল (দুস্তর ব্যবধান) – আকাশ ও অমল সহােদর ভাই, কিন্তু দুজনের চরিত্রে আকাশ পাতাল ব্যবধান।
  • আক্কেল গুড়ুম (স্তম্ভিত) - এইটুকু ছেলের কথা শুনে আমার তাে আক্কেল গুড়ুম।
  • আকাশ ভেঙে পড়া (মহাবিপদ) - বাবার মৃত্যু সংবাদ পেয়ে অমলের মাথায় যেন আকাশ ভেঙে পড়ল।
  • আক্কেল সেলামী (নির্বুদ্ধিতার শাস্তি) – বিনা টিকেটে যারা রেল ভ্রমণ করে তাদেরকে মাঝে মধ্যে আক্কেল সেলামী দিতে হয়।



১. আকাশকুসুম (অসম্ভব কল্পনা)

২. আকাশ পাতাল (দুস্তর ব্যবধান)

৩. আক্কেল গুড়ুম (স্তম্ভিত)

৪. আকাশ ভেঙে পড়া (মহাবিপদ)

৫. আক্কেল সেলামী (নির্বুদ্ধিতার শাস্তি)

৬. আকাশে তােলা (মাত্রাতিরিক্ত প্রশংসা)

৭. আক্কেল দাঁত (বুদ্ধির পরিপক্কতা)

৮. আখের গােছানাে (স্বার্থ হাসিল করা)

৯. আটকপালে (হতভাগা)

১০. আমড়া কাঠের ভেঁকি (অপদার্থ)

১১. আধাঁর ঘরের মানিক (অতি প্রিয় বস্তু)

১২. আষাঢ়ে গল্প (আজগুবি গল্প)

১৩. আপন পায়ে কুড়াল মারা (নিজের অনিষ্ট করা)

১৪. আগুন নিয়ে খেলা (বিপদের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করা)

১৫. আগুন লাগা সংসার ভেঙে যাচ্ছে এমন সংসার)

১৬. আঁতে ঘা (মনকষ্ট)

১৭. আদাজল খেয়ে লাগা (উঠে পরে লাগা, সবিশেষ চেষ্টা)

১৮. আদায়-কাচকলায় (শত্রুতা)

১৯. আঠার মাসে বছর (দীর্ঘসূত্রিতা)

২০. ইচড়ে পাকা (অকালপক্ক)

২১. ইদুর কপালে (মন্দ ভাগ্য)

২২. ইতরবিশেষ (বৈষম্য)

২৩. উড়নচণ্ডী (অমিতব্যয়ী)

২৪. উত্তম-মধ্যম (প্রহর)

২৫. উভয় সংকট (দু’দিকেই বিপদ)

২৬. উলুবনে মুক্তা ছড়ানাে (অপাত্রে দান)

২৭. একাই একশ (অসাধারণ কর্মকুশল)

২৮. এক কথার মানুষ (যার কথায় নড়চড় হয় না)

২৯. এক মাঘে শীত যায় না (বিপদ একবার আসে না)

৩০. উদোর পিণ্ডি বুদোর ঘাড়ে (একজনের অপরাধ অন্যের উপর চাপানাে)

৩১. উড়ে এসে জুড়ে বসা (অযাচিতভাবে এসে সর্বেসর্বা হওয়া)

৩২. ঊনপঞ্চশ বায়ু (পাগলামি)

৩৩. ঊনপাঁজুরে (হতভাগ্য)

৩৪. একচোখাে (পক্ষপাত)

৩৫. এলাহি কাণ্ড (বিরাট ব্যাপার)

৩৬. এক নজরে (অতি অল্প সময়ের জন্য)

৩৭. এক ঢিলে দুই পাখি মারা (এক সাথে দুই কাজ সমাধা করা)

৩৮. একাদশে বৃহস্পতি (সুসময়)

৩৯. উঠতে বসতে (সব সময়)









         



Saturday, 26 October 2019

Discussed line and creator (আলোচিত পঙতি ও স্রষ্টা)

Bengali, exam, knowledge, English, important, competitive, job
আলোচিত পঙতি ও স্রষ্টা

আলোচিত পঙতি ও স্রষ্টা


প্রশ্ন: অভাগা যদ্যপি চায় সাগর শুকায়ে যায়- এ প্রবাদটির রচয়িতা কে?
উঃ মুকুন্দরাম।
প্রশ্ন: হে বঙ্গ, ভান্ডারে তব বিবিধ রতন তা সবে, (অবোধ আমি) অবহেলা করি, পর ধন লোভে মত্ত করিনু ভ্রমন এই কবিতাংশটুকু কোন কবি কে?
উঃ মধুসূদন দত্ত।
প্রশ্ন: আমার সন্তান যেন থাকে দুধে ভাতে - উক্তি কোন গ্রন্থের?
উঃ অন্নদামঙ্গল কাব্যের।
প্রশ্ন: যে জন দিবসে মনের হরষে জালায় মোমের বাতি এপংতির রচয়িতা কে?
উঃ কৃষ্ণচন্দ্র মজুমদার।
প্রশ্ন: পাখি সব করে রব রাতি পোহাইল।”- কার লেখা?
উঃ মদনমোহন তর্কালঙ্কারের।
প্রশ্ন: সাত কোটি সন্তানের হে মুগ্ধ জননী, রেখেছ বাঙালী করে মানুষ করনি। -কোন কবির উক্তি?
উঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।
প্রশ্ন: স্বাধীনতা হীনতায় কে বাঁচিতে চায় হে- কার রচয়িতার অংশ?
উঃ রঙ্গলাল মুখপাধ্যায়।
প্রশ্ন: চিরসুখী জন ভ্রমে কি কখন ব্যথিত বেদন বুঝিতে পারে? কার রচনা?
উঃ কৃষ্ণচন্দ্র মজুমদার।
প্রশ্ন: তোমাদের পানে চাহিয়া বন্ধু আর আমি জাগিব না কোলাহল করি সারা দিনমান কারো ধ্যান ভাঙিব না। নজরুলের কোন কবিতার অংশ?
উঃ বাতায়ন পাশে গুবাক তরুর সারি।
প্রশ্ন: কোথায় স্বর্গ কোথায় নরক- পংক্তির রচয়িতা?
উঃ ফজলূল করিম।
প্রশ্ন: যুদ্ধ মানে শত্রু শত্রু খেলা, যুদ্ধ মানেই আমার প্রতি তোমার অবহেলা- কার কবিতার অংশ? q
উঃ নির্মলেন্দু গুন।
প্রশ্ন: আমার দেশের পথের ধুলা খাটি সোনার চাইতে খাঁটি কার রচনা?
উঃ সত্যেন্দ্রনাথ দত্ত।
প্রশ্ন: আসাদের শার্ট আজ আমাদের প্রানের পতাকা।-পংক্তি কার?
উঃ শামসুর রাহমান।
প্রশ্ন: বিপদে মোরে রক্ষা কর এ নহে মোর প্রার্থনা বিপদে আমি না যেন করি ভয় উপরোক্ত অংশটি রবীন্দ্রনাথের কোন কবিতার?
উঃ দুরন্ত আশা।
প্রশ্ন: রক্ত ঝরাতে পারি না তো একা, তাই লিখে যাই এ রক্ত লেখা- পংক্তিটি কার রচিত?
উঃ কাজী নজরুল ইসলাম।
প্রশ্ন: বাংলার মুখ আমি দেখিয়াছি, তাই আমি পৃথিবীর রূপ দেখিতে চাই না আর- কোন কবির রচনা?
উঃ জীবনানন্দ দাশের।
প্রশ্ন: বাঁশ বাগানের মাথার উপর চাঁদ উঠেছে ঐ - পংক্তির রচয়িতা কে?
উঃ যতীন্দ্রমোহন বাগচী।
প্রশ্ন: ক্ষুধার রাজ্য পৃথিবী গদ্যময় পূর্ণিমার চাঁদ যেন ঝলসানো রুটি- পংক্তি কোন কবির?
উঃ সুকান্ত ভট্টাচার্য।
প্রশ্ন: মন্ত্রের সাধন কিংবা শরীর পাতন- উক্তি কার?
উঃ ভারতচন্দ্রের।
প্রশ্ন: প্রীতি ও প্রেমের পূন্য বাধনে যবে মিলি পরস্পরে, স্বর্গে আসিয়া দাঁড়ায় তখন আমাদেরি কুঁড়ে ঘরে।
উঃ স্বর্গ ও নরক শেখ ফজলূল করিম।
প্রশ্ন: জন্মেছি মাগো তোমার কোলেতে মরি যেন এই দেশে।- কবিতাংশটির কবি কে?
উঃ জন্মে্িছ এই দেশে। সুফিয়া কামাল।
প্রশ্ন: কত গ্রাম কত পথ যায় সরে সরে, শহরে রানার যাবেই পৌঁছে ভোরে। পংক্তি দুটির কবি কে?
উঃ রানার সুকান্ত ভট্টাচার্য।
প্রশ্ন: আমি থাকি মহাসুখে অট্টালিকা পরে তুমি কত কষ্ট পাও রোদ, বৃষ্টি, ঝড়ে। - কবিতাংশটি?
উঃ স্বাধীনতার সুখ রজনীকান্ত সেন।
প্রশ্ন: সংসারেতে ঘটিলে ক্ষতি লভিলে শুধু বঞ্চনা নিজের মনে না যেন মানি ক্ষয়- কবিতাংশটি?
উঃ আত্মত্রান রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।
প্রশ্ন: মহাজ্ঞানী মহাজন, যে পথে করে গমন হয়েছেন প্রাতঃস্মরনীয়।- উক্তির কবিতা ও কার রচনা?
উঃ জীবন- সঙ্গীত, হেমচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়।
প্রশ্ন: সকলের তরে সকলে আমরা প্রত্যেকে মোরা পরের তরে।- কবিতাংশটি?
উঃ সুখ কামিনী রায়।
প্রশ্ন: আবার আসিব ফিরে ধানসিঁড়িটির তীরে এই বাংলায় হয়তো মানুষ নয় হয়তো বা শঙ্খচিল শালিকের বেশে।- কোন কবির রচনা?
উঃ আবার আসিব ফিরে জীবনানন্দ দাশ।
প্রশ্ন: হাজার বছর ধরে আমি পথ হাঁটিতেছে পৃথিবীর পথে সিংহল সমুদ্র থেকে নিশীদের অন্ধকারে মালয় সাগরে- এই উক্তিটি কার?
উঃ বনলতা সেন জীবনানন্দ দাশ।
প্রশ্ন: সব পাখি ঘরে আসে সব নদী ফুরায় এ জীবনের সব লেন দেন; থাকে শুধু অন্ধকার”- এই উক্তিটি কার?
উঃ বনলতা সেন জীবনানন্দ দাশ।
প্রশ্ন: আমি যদি হতাম বনহংস বনহংসী হতে যদি তুমি- কোন কবির রচনা?
উঃ আমি যদি হতাম জীবনানন্দের দাস।
প্রশ্ন: শোনা গেল লাশ কাটা ঘরে নিয়ে গেছে তারে; কাল রাতে ফাগুন রাতের চাঁদ মরিবার হলো তার সাধ”- উদ্ধৃত অংশটুকু কার রচনা?
উঃ জীবনানন্দ দাশের।
প্রশ্ন: সুরঞ্জনা, ঐখানে যেয়ো না তুমি বোলো নাকো কথা ওই যুবকের সাথে,”- উদ্ধৃত অংশটুকুর কবি কে?
উঃ সুরঞ্জনা জীবনানন্দ দাশ।
প্রশ্ন: হে সূর্য! শীতের সূর্য! হিমশীতল সুদীর্ঘ রাত তোমার প্রতীক্ষায় আমরা থাকি,”- কোন কবির রচনা?
উঃ সুকান্ত ভট্টাচার্য।
প্রশ্ন: অবাক পৃথিবী অবাক করলে তুমি, জন্মেই দেখি ক্ষদ্ধ স্বদেশ ভূমি। কোন কবির রচনা?
উঃ সুকান্ত ভট্টাচার্য।
প্রশ্ন: “রানার ছুটেছে তাই ঝুমঝুম ঘন্টা রাজছে রাতে রানার চলেছে খবরের বোঝা হাতে- কবিতাংশটি?
উঃ সুকান্ত ভট্টাচার্যের রানার।
প্রশ্ন: হিমালয় থেকে সুন্দরবন, হঠাৎ বাংলাদেশ কেঁপে কেঁপে ওঠে পদ্মার উচ্ছাসে, - রচয়িতা কে?
উঃ সুকান্ত ভট্টাচার্য।
প্রশ্ন: হে মহা জীবন, আর এ কাব্য নয়, এবার কঠিন, কঠোর গদ্য আনো রচয়িতা কে?
উঃ মহাজীবন সুকান্ত ভট্টাচার্য।
প্রশ্ন: কেউ কথা রাখেনি, তেত্রিশ বছর কাটলো, কেউ কথা রাখে নি- চরনটির কবি কে?
উঃ কবি সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়।
প্রশ্ন: আজি হতে শত বর্ষে পরে কে তুমি পড়িছ, বসি আমার কবিতাটিখানি কৌতূহল ভরে,- কবিতাংশটি?
উঃ ১৪০০ সাল রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।
প্রশ্ন: আজি হতে শত বর্ষে আগে, কে কবি, স্মরণ তুমি করেছিলে আমাদের শত অনুরাগে - কবিতাংশটি?
উঃ ১৪০০ সাল নজরুল ইসলাম।
প্রশ্ন: মহা নগরীতে এল বিবর্ন দিন, তারপর আলকাতরার মত রাত্রী রচয়িতার নাম কি?
উঃ কবি সমর সেন।
প্রশ্ন: আমি কিংবদন্তীর কথা বলছি, আমি আমার পূর্ব পুরুষের কথা বলছি এই কবিতাংশটুকুর কবি কে?
উঃ আবু জাফর ওবায়দুল্লাহ।
প্রশ্ন: ঠাঁই নাই, ঠাঁই নাই, ছোটো এ তরী, আমারী সোনার ধানে গিয়েছে ভরি। -চরনটির কবি কে?
উঃ সোনার তরী রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।
প্রশ্ন: এখন যৌবন যার মিছিলে যাবার সময় তার শ্রেষ্ঠ সময় এখন যৌবন যার যুদ্ধে যাবার তার শ্রেষ্ঠ সময়। এই অংশটুকুর রচয়িতা কে?
উঃ হেলাল হাফিজ।
প্রশ্ন: জন্মেই কুঁকড়ে গেছি মাতৃজরায়ন থেকে নেমে, সোনালী পিচ্ছিল পেট আমাকে উগড়ে দিলো যেন এই কবিতাংশটুকুর কবি কে?
উঃ শহীদ কাদরী।
প্রশ্ন: জন্মই আমার আজন্ম পাপ, মাতৃজরায়ু থেকে নেমেই জেনেছি আমি- এই কবিতাংশটুকুর রচয়িতা?
উঃ দাউদ হায়দার।
প্রশ্ন: মোদের গরব মোদের আশা, আ মরি বাংলা ভাষা। চরনটির কবি কে?
উঃ অতুল প্রসাদ সেন।
প্রশ্ন: স্মৃতির মিনার ভেঙ্গেছে তোমার? ভয়কি কি বন্ধু, আমরা এখনো চরনটির রচয়িতা কে?
উঃ আলাউদ্দিন আল আজাদ।
প্রশ্ন: আজো আমি বাতাসে লাশের গন্ধ পাই, আজো আমি মাটিতে মৃত্যুর নগ্ননৃত্য দেখি, চরনটির রচয়িতা?
উঃ রুদ্র মোঃ শহীদুল্লাহ।
প্রশ্ন: বহু দেশ দেখিয়াছি বহু নদ-নলে কিন্তু এ দেহের তৃঞ্চা মিটে কার জলে?- চরনটির রচয়িতা কে?
উঃ মধুসূদন দত্ত।
প্রশ্ন: আমার এ ঘর ভাঙিয়াছে যেবা, আমি বাঁিধ তার ঘর, আপন করিতে কাঁদিয়া বেড়াই যে মোরে করেছে পর। চরনটির রচয়িতা কে?
উঃ জসীম উদ্দিন।
প্রশ্ন: যে শিশু ভুমিষ্ঠ হল আজ রাত্রে তার মুখে খবর পেলুমঃ সে পেয়েছে ছাড়পত্র এক,- চরনটির রচয়িতা?
উঃ ছাড়পত্র সুকান্ত ভট্টাচার্য।
প্রশ্ন: আপনাদের সবার জন্য এই উদার আমন্ত্রন ছবির মতো এই দেশে একবার বেড়িয়ে যান। রচয়িতা?
উঃ আবু হেনা মোস্তাফা কামাল।
প্রশ্ন: তুমি আসবে বলে হে স্বাধীনতা সকিনা বিবির কপালে ভাঙলো, সিথির সিদুঁর মুছে গেল হরিদাসীর চরনটির রচয়িতা কে?
উঃ শামসুর রাহমান।
প্রশ্ন: জনতার সংগ্রাম চলবেই, আমাদের সংগ্রাম চলবেই। হতমানে অপমানে নয়, সুখ সম্মানে রচয়িতা?
উঃ সিকান্দার আবু জাফর।
প্রশ্ন: ওই দূর বনে সন্ধ্যা নামিছে ঘন আবীরের রাগে অমনি করিয়া লুটায়ে পড়িতে বড় সাধ আজ জাগে। চরনটির রচয়িতা কে?
উঃ কবর-জসীমউদ্দীন।
প্রশ্ন: তাল সোনাপুরের তালেব মাস্টার আমি, আজ থেকে আরম্ভ করে চল্লিশ বছর দিবসযামী রচয়িতা কে?
উঃ আশরাফ ছিদ্দিকী।
প্রশ্ন: সই, কেমনে ধরিব হিয়া আমার বধুয়া আন বাড়ি যায় আমার আঙিনা দিয়া। রচয়িতা কে?
উঃ চন্ডিদাস।
প্রশ্ন: রূপলাগি অখিঁ ঝুরে মন ভোর প্রতি অঙ্গ লাগি কান্দে প্রতি অঙ্গ মোর। রচয়িতা কে?
উঃ জ্ঞানদাস।
প্রশ্ন: কুহেলী ভেদিয়া জড়তা টুটিয়া এসেছে বসন্তরাজ- চরনগুলির রচয়িতা কে?
উঃ কবি সৈয়দ এমদাদ আলী।


         




Tuesday, 22 October 2019

Explain in one word


explain in one word


Explain in one word (এক কথায় প্রকাশ)  ঃ


👤নারীঃ

★যে নারী পরের গৃহে শিল্পাদি কর্মের দ্বারা জীবিকা অর্জন করে = = সৈরন্ধ্রী।
★যে নারীর বয়স দশ বৎসর= কন্যকা।
★যে নারী অপরের অর্থে জীবনধারণ করে= পরভৃতিকা
★যে নারীর পুনরায় বিবাহ হয়েছে= পুর্নভূ।
★যে নারী অন্যের নিন্দা করে না = অনসূয়া।
★যে নারীর রূপ আছে= রূপসী।
※ যে নারী প্রিয় কথা বলে = প্রিয়ংবদা।
※ যে নারী প্রিয় বাক্য বলে = প্রিয়ভাষী।
★যে নারী বহু সন্তানবতী= বালপুত্রিকা।
※ যে নারী নিজে বর বরণ করে নেয় = স্বয়ংবরা।
★যে নারীর স্বামী মৃত= বিধবা।
※ যে নারী (মেয়ের) বিয়ে হয়নি = কুমারী।
★যে নারীর স্বামী বর্তমান= সধবা।
※ যে নারীর বিয়ে হয় না = অনূঢ়া।
★ যে নারীর বিয়ে না দিয়ে আর রাখা যায়না = অরক্ষণীয়া।
※ যে নারীর সম্প্রতি বিয়ে হয়েছে = নবোঢ়া।
※ যে নারীর কোন সন্তান হয় না = বন্ধ্যা।




※ যে নারী জীবনে একটিমাত্র সন্তান প্রসব করেছে = কাকবন্ধ্যা।
★যে নারী শাস্তি দেয় = শাস্ত্রী।
※ যে নারীর সন্তান বাঁচে না = মৃতবৎসা।
※ যে নারীর স্বামী ও পুত্র মৃত = অবীরা।
※ যে নারীর স্বামী ও পুত্র জীবিত = বীরা বা পুরন্ধ্রী।
※ যে নারী বীর সন্তান প্রসব করে = বীরপ্রসূ।
★যে নারীর শুচি হাস্য বা কুটিলতাবর্জিত= শুচিস্মিতা।
※ যে নারীর হাসি সুন্দর = সুস্মিতা।
※ যে নারী বীর = বীরাঙ্গনা।
※ যে নারী অন্য কারও প্রতি আসক্ত হয়না = অনন্যা।
★যে নারী বিবাহের সম্পূর্ণ যোগ্যা= সমকন্যা।
※ যে নারী কখনো সূর্যকে দেখে নাই = অসূর্যম্পশ্যা।
※ যে নারীর স্বামী বিদেশে থাকে = প্রোষিতভর্তৃকা।
★যে নারীর ভাবী স্বামী মারা গেছে =অন্যপূর্বা।
★পতিপুত্রহীনা নারী= অবীরা।
★যে নারী অল্প শ্রমে পরিশ্রান্ত হয়ে পড়ে = ফুলটুসি।






         




Tuesday, 27 August 2019

All important information about Rabindranath Tagore (রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সম্পর্কে সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য)





রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সম্পর্কে সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ তথ্যঃ



প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কবে, কোথায় জন্মগ্রহণ করেন?
উত্তরঃ ১৮৬১ সালের ৭ মে, ১২৬৮ বঙ্গাব্দের ২৫ বৈশাখ, কলকাতার জোড়াসাঁকো নামক স্থানে এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে।
প্রশ্নঃ তিনি মূলত কি হিসেবে পরিচিত ছিলেন?
উত্তরঃ বাংলা সাহিত্যের সর্বশ্রেষ্ঠ প্রতিভা; সব্যসাচী লেখক, কবি,নাট্যকার, ঔপন্যাসিক, ছোটগল্পকার, প্রাবন্ধিক, দার্শনিক, সঙ্গীত রচয়িতা, সুরস্রষ্টা, গায়ক, চিত্রশিল্পী, অভিনেতা, সমাজসেবী ও শিক্ষাবিদ।
প্রশ্নঃ তাঁর পিতামহ, পিতামহী এবং পিতা ও মাতার নাম কী?
উত্তরঃ পিতামহ ছিলেন প্রিন্স দ্বারকানাথ ঠাকুর, পিতামহী দিগম্বরীদেবী এবং পিতা ছিলেন মহর্ষি দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর ও মাতা সারদা দেবী।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ মাতা-পিতার কততম সন্তন?
উত্তরঃ তিনি মা-বার চতুর্দশ সন্তান ও অষ্টম পুত্র। রবীন্দ্রনাথেরা পনের ভাইবোন ছিলেন।
প্রশ্নঃ তিনি কত বছর বয়সে কবিতা রচনা করতে আরম্ভ করেন?
উত্তরঃ আট বছর।
প্রশ্নঃ কত বছর বয়সে তাঁর প্রথম নিঃস্বাক্ষরযুক্ত কবিতা প্রকাশিত হয় এবং তা কোন্ পত্রিকায় প্রকাশিত হয়?
উত্তরঃ ১৮৭৪ সালে 'তত্ত্ববোধিনী' পত্রিকায়। তখন তাঁর বয়স ছিল মাত্র তেরো বৎসর।
প্রশ্নঃ কবিতাটির নাম কী ছিল?
উত্তরঃ 'অভিলাষ'।
প্রশ্নঃ কত বছর বয়সে তাঁর প্রথম স্বাক্ষরযুক্ত কবিতা প্রকাশিত হয় এবং তা কোন্ পত্রিকায়? উত্তরঃ ২৫•০২•১৮৭৫ সালে 'অমৃতবাজার' পত্রিকায়। তখন তাঁর বয়স ছিল মাত্র চোদ্দ বৎসর।
প্রশ্নঃ কবিতাটির নাম কী ছিল?
উত্তরঃ 'হিন্দুমেলার উপহার'।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ কত সালে ইংরেজি সাহিত্য পাঠের উদ্দেশ্যে প্রথম ইংল্যান্ডে যান?
উত্তরঃ ১৮৭৮ সালে।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রথম প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থের নাম কী?
উত্তরঃ 'কবিকাহিনী' (প্রকাশকাল ১৮৭৮)।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের দ্বিতীয় প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থের নাম কী? উত্তরঃ 'বনফুল' (প্রকাশকাল : ১৮৮০)।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর রচিত প্রথম নাটক কোনটি?
উত্তরঃ 'রুদ্রচণ্ড' (প্রকাশকাল : ১৮৮১)।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথের প্রথম প্রকাশিত নাটকের নাম কী?
উত্তরঃ 'বাল্মীকি প্রতিভা' (প্রকাশকাল: ১৮৮১)।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথের প্রথম প্রকাশিত উপন্যাসের নাম কী?
উত্তরঃ 'বৌ ঠাকুরাণীর হাট' (প্রকাশকাল: ১৮৮৩)।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথের প্রথম প্রকাশিত ছোটগল্পের নাম কী? সেটি কোন্ পত্রিকায় প্রকাশিত হয়? উত্তরঃ 'ভিখারিণী' (আশ্বিন-ভাদ্র ১২৮৪/১৮৭৭)। 'ভারতী' পত্রিকায়।
প্রশ্নঃ তখন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বয়স কত ছিল?
উত্তরঃ মাত্র ষোলো বছর।
প্রশ্নঃ বাংলা ছোটগল্পের জনক বলা হয় কাকে?
উত্তরঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথের প্রথম প্রকাশিত প্রবন্ধগ্রন্থ কোনটি?
উত্তরঃ 'বিবিধপ্রসঙ্গ' (১৮৮৩)।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রথম প্রকাশিত প্রবন্ধ কোনটি? সেটি কত সালে কোন্ কোন্ পত্রিকায় প্রকাশিত হয়?
উত্তরঃ 'ভুবনমোহিনী প্রতিভা'। সেটি 'জ্ঞানাঙ্কুর' ও 'প্রতিবিম্ব' পত্রিকার কাৰ্তিক ১২৮৩ সংখ্যায় প্রকাশিত হয়।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শেষ প্রকাশিত প্রবন্ধ কোনটি?
উত্তরঃ 'সভ্যতার সংকট' (১৯৪১)।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ তাঁর নিজের লেখা কয়টি নাটকে অভিনয় করেন?
উত্তরঃ ১৩টি।
প্রশ্নঃ আর্জেন্টিনার কোন মহিলা কবিকে রবীন্দ্রনাথ বিজয়া নাম দেন?
উত্তরঃ ভিক্টোরিয়া ওকাম্পো।
প্রশ্নঃ তাঁকে রবীন্দ্রনাথ কি উৎসর্গ করেন?
উত্তরঃ পূরবী (১৯২৫) কাব্য।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথের সর্বশেষ বিদেশযাত্রা কোন দেশে, কবে?
উত্তরঃ সিংহল, ১৯৩৪ সালে।
প্রশ্নঃ প্রথমজীবনে রবীন্দ্রনাথের সর্বাপেক্ষা উল্লেখযোগ্য কবিতা কোনটি?
উত্তরঃ 'নির্ঝরের স্বপ্নভঙ্গ' ('আজি এ প্রভাতে রবির কর/ কেমনে পশিল প্রাণের পর')।
প্রশ্নঃ হিন্দু-মুসলিম মিলনের লক্ষ্যে রবীন্দ্রনাথ কোন উৎসবের সূচনা করেন?
উত্তরঃ 'রাখিবন্ধন'।
প্রশ্নঃ ভবতারিণী দেবীর সঙ্গে কত সালে তাঁর বিয়ে হয়?
উত্তরঃ ১৮৮৩ সালে ৯ ডিসেম্বর।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথের শ্বশুর বাড়ি কোথায়?
উত্তরঃ বাংলাদেশের খুলনায়।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ ভবতারিণী দেবীর নাম পাল্টে কি রাখেন?
উত্তরঃ মৃণালিনী দেবী।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ-মৃণালিনীর কয় সন্তান ছিল?
উত্তরঃ ৫ জন। দুই পুত্র, তিন কন্যা।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথের বৌঠান জ্যোতিন্দ্রনাথের পত্নী কাদম্বরী দেবী কত সালে আত্মহত্যা করেন? উত্তরঃ ১৯.০৪.১৮৮৪ সালে।
প্রশ্নঃ কবিপত্নী মৃণালিনী দেবীর মৃত্যু হয় কত সালে?
উত্তরঃ ১৯০২ সালে।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ কত সালে ব্রাহ্ম সমাজের দায়িত্ব গ্রহণ করেন?
উত্তরঃ ১৮৮৪ সালে।
প্রশ্নঃ তাঁর ‘রাজর্ষি’ উপন্যাস কোন পত্রিকায় বের হয়?
উত্তরঃ ‘বালক’ পত্রিকায়।
প্রশ্নঃ কবি কত সাল ‘শান্তিনিকেতন'-এ পাকাপাকিভাবে বসবাস শুরু করেন?
উত্তরঃ ১৯০১ সালে।
প্রশ্নঃ কত সালে কবি শান্তিনিকেতনে ‘ব্রহ্মচর্যাশ্রম’ নামে একটি আবাসিক বিদ্যালয় স্থাপন করেন?
উত্তরঃ ১৯০১ সালে।
প্রশ্নঃ কত সালে ‘ব্রহ্মচর্যাশ্রম’ বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হয়?
উত্তরঃ ১৯২১ সালে।
প্রশ্নঃ ‘গীতাঞ্জলি’ কাব্য কত সালে প্রকাশিত হয়?
উত্তরঃ ১৯১০ সালে।
প্রশ্নঃ গীতাঞ্জলির অনুবাদ 'Song offerings' নামে কত সালে প্রকাশিতহয়।
উত্তরঃ ১৯১২ সালের নভেম্বরে, ইংল্যান্ডে।
প্রশ্নঃ 'Song offerings'-এর ভূমিকা লেখেন কে?
উত্তরঃ ইংরেজ কবি W.B. Yeats.
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ কোন গ্রন্থের জন্য নোবেল পুরস্কার লাভ করেন?
উত্তরঃ বাংলা ভাষায় প্রকাশিত 'গীতাঞ্জলি' কাব্যগ্রন্থের জন্য নোবল পুরস্কার দেওয়া হয় না। রবীন্দ্রনাথ এই পুরস্কার অর্জন করেন 'গীতাঞ্জলি' কাব্যগ্রন্থের ইংরেজি অনুবাদ 'Song offerings' গ্রন্থের জন্য।
প্রশ্নঃ কবি কত সালে নোবেল পুরস্কার পান?
উত্তরঃ ১৯১৩ সালের নভেম্বর মাসে।
প্রশ্নঃ কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় কত সালে তাঁকে ডি.লিট উপাধি প্রদান করেন?
উত্তরঃ ১৯১৩ সালের ২৬ ডিসেম্বর।
প্রশ্নঃ শান্তিনিকেতন থেকে রবীন্দ্রনাথের নোবেল পদক চুরি যায় কবে?
উত্তরঃ ২৪ মার্চ, ২০০৪ দিবাগত রাতে।
প্রশ্নঃ ব্রিটিশ সরকার কত সালে তাকে নাইটহুড বা ‘স্যার’ উপাধি প্রদান করেন?
উত্তরঃ ১৯১৫, ৩ জুন।
প্রশ্নঃ তিনি কবে, কেন তা বর্জন করেন?
উত্তরঃ পাঞ্জাবের জালিয়ানওয়ালাবাগহত্যাকান্ডের (১৩•৪•১৯১৯) প্রতিবাদে ১৯১৯ সালের এপ্রিলে।
প্রশ্নঃ অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় তাঁকে কত সালে ডি-লিট উপাধি প্রদান করে।
উত্তরঃ ১৯৪০ সালের ৭ আগস্ট।
প্রশ্নঃ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তাঁকে কত সালে ডি-লিট উপাধি দেয়াহয়?
উত্তরঃ ১৯৩৬ সালে।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথের সৃষ্টিভান্ডারেরসংখ্যা কত?
উত্তরঃ কাব্যগ্রন্থ ৫৬টি, গীতিপুস্তক ৪টি, ছোটগল্প ১১৯টি, উপন্যাস ১২টি, ভ্রমণ কাহিনী ৯টি, নাটক ২৯টি, কাব্যনাট্য ১৯টি, চিঠিপত্রের বই১৩টি, গানের সংখ্যা ২২৩২টি এবং অঙ্কিত চিত্রাবলী প্রায় দু’হাজার।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রধান কাব্যগ্রন্থগুলোর নাম কী কী?
উত্তরঃ' সোনার তরী' (১৮৯৪), 'চিত্রা' (১৮৯৬), 'চৈতালী' (১৩০৩ বঙ্গাব্দ), 'কল্পনা' (১৯০০), 'ক্ষণিকা' (১৯০০), 'গীতাঞ্জলি' (১৯১০), 'বলাকা' (১৯১৫), 'পূরবী' (১৯২৫), 'পুনশ্চ' (১৯৩২), 'পত্রপুট' (১৯৩৬), 'সেঁজুতি' (১৯৩৮)।
প্রশ্নঃ ‘উৎসর্গ’ গ্রন্থের পরিচয় দাও। উত্তরঃ ৪৬টি কবিতার সংকলন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘উৎসর্গ’ (১৯১৪)।
প্রশ্নঃ তাঁর উল্লেখযোগ্য উপন্যাস কোনগুলো?
উত্তরঃ 'চোখের বালি' (১৯০৩), 'গোরা' (১৯১০), 'চতুরঙ্গ' (১৯১৬), 'ঘরে-বাইরে' (১৯১৬), 'চার অধ্যায়' (১৯৩৪)।
প্রশ্নঃ ‘ঘরে-বাইরে’ উপন্যাসের পরিচয় দাও।
উত্তরঃ ঘরে-বাইরে’ (১৯১৬) চলিতভাষায় লেখা রবীন্দ্রনাথের প্রথম উপন্যাস। উপন্যাসটি ‘সবুজপত্রে’ প্রকাশিত হয় ১৯১৫ সালে।
প্রশ্নঃ ‘শেষের কবিতা’ গ্রন্থের পরিচয় দাও।
উত্তরঃ ‘শেষের কবিতা’ (১৯২৯) রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর রচিত উপন্যাস। ‘প্রবাসী’ পত্রিকায় প্রকাশিত হয় ১৯২৮ সালে।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথের উল্লেখযোগ্য নাটকের নাম লেখ।
উত্তরঃ 'বিসর্জন' (১৮৯১), 'রাজা' (১৯১০), 'ডাকঘর' (১৯১২), 'অচলায়তন' (১৯১২), 'চিরকুমার সভা' (১৯২৬), 'রক্তকরবী' (১৯২৬), 'তাসের দেশ' (১৯৩৩) ইত্যাদি।
প্রশ্নঃ বিসর্জন নাটকে রবীন্দ্রনাথ কোন চরিত্রে অভিনয় করেন?
উত্তরঃ ১৮৯০ সালে 'রঘুপতি', ১৯২৩ সালে 'জয়সিংহ'-এর ভূমিকায়।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উল্লেখযোগ্য প্রবন্ধ গ্রন্থের নাম লেখ।
উত্তরঃ 'পঞ্চভূত' (১৮৯৭), 'বিচিত্রপ্রবন্ধ' (১৯০৭), 'সাহিত্য' (১৯০৭), 'মানুষের ধর্ম'(১৯৩৩), 'কালান্তর' (১৯৩৭), 'সভ্যতার সংকট' (১৯৪১) ইত্যাদি।
প্রশ্নঃ ‘মানুষের উপর বিশ্বাস হারানো পাপ’। --- কোন্ প্রবন্ধে রবীন্দ্রনাথ এ কথা বলেছেন?
উত্তরঃ 'সভ্যতার সংকট' প্রবন্ধে।
প্রশ্নঃ ধ্বনিবিজ্ঞানের উপর লেখা রবীন্দ্রগ্রন্থের নাম কী?
উত্তরঃ 'শব্দতত্ত্ব' (১৯০৯)।
প্রশ্নঃ ‘ছিন্নপত্র’ কাকে লেখা চিঠির সমাহার?
উত্তরঃ ভ্রাতুষ্পুত্রী ইন্দিরা দেবীকে লেখা। ছিন্নপত্র প্রকাশ: ১৯১২।
প্রশ্নঃ ইন্দিরা দেবীর সঙ্গে কার বিবাহ হয়?
উত্তরঃ প্রমথ চৌধুরীর। পরে তিনি ইন্দিরা দেবী চৌধুরাণী হন।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আত্মজীবনী মূলক গ্রন্থগুলির নাম লেখ।
উত্তরঃ 'জীবনস্মৃতি' (১৯১২), 'ছেলেবেলা' (১৯৪০), 'আত্মপরিচয়' (১৯৪৩)।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ কাজী নজরুলকে কোন্ গ্রন্থ উৎসর্গ করেন?
উত্তরঃ 'বসন্ত' (প্রকাশকাল : ফাগ্লুন ১৩২৯/১৯২৩) গীতিনাট্য।
প্রশ্নঃ কাজী নজরুল ইসলাম রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে কোন্ গ্রন্থটি উৎসর্গ করেন?
উত্তরঃ নজরুলের কাব্যরচনার শ্রেষ্ঠ সমাহার ‘সঞ্চিতা’ (প্রকাশকাল : ১৯২৫)।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কোন্ কোন্ পত্রিকা সম্পাদনা করেন?
উত্তরঃ 'সাধনা' (১৮৯৪), 'ভারতী' (১৮৯৮), 'বঙ্গদর্শন' (১৯০১), 'তত্ত্ববোধিনী' (১৯১১)।
প্রশ্নঃ বাংলা সাহিত্যে প্রথম মনস্তাত্ত্বিক উপন্যাসের নাম কী?
উত্তরঃ 'চোখের বালি' (১৯০৩)।
প্রশ্নঃ ‘শেষলেখা’ কী?
উত্তরঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের মৃত্যুর পর প্রকাশিত তাঁর শেষ কাব্যগ্রন্থ (১৯৪১)।
প্রশ্নঃ ‘সঞ্চয়িতা’ কী?
উত্তরঃ ‘সঞ্চয়িতা’ (১৯৩১) রবীন্দ্রনাথকৃত নিজ কবিতার সংকলন।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথের গদ্যকবিতা রচনা কোন্ গ্রন্থ দিয়ে শুরু?
উত্তরঃ 'পুনশ্চ' (১৯৩২)।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথের কোন্ গান বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত?
উত্তরঃ আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালবাসি-গানের প্রথম ১০ পঙক্তি।
প্রশ্নঃ এই গানটি রবীন্দ্রনাথের কোন্ গ্রন্থভুক্ত?
উত্তরঃ 'গীতবিতান'-এর 'স্বরবিতান' অন্তর্ভুক্ত।
প্রশ্নঃ এই গানটি রবীন্দ্রনাথের কোন্ পর্যায়ের গান?
উত্তরঃ স্বদেশ পর্যায়ের।
প্রশ্নঃ এই গানের সুরকার কে?
উত্তরঃ রবীন্দ্রনাথ স্বয়ং। (এই গানে বাউল গগন হরকরার সুরের প্রভাবপড়েছিল।)
প্রশ্নঃ বাংলাদেশের কোন রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠানে এই সঙ্গীতের কত পঙক্তিবাদ্যযন্ত্রে বাজান হয়?
উত্তরঃ ৪ পঙক্তি।
প্রশ্নঃ এই সঙ্গীত প্রথম কোথায়, কত সালে প্রকাশিত হয়?
উত্তরঃ 'বঙ্গদর্শন' পত্রিকায় ১৩১২/১৯০৫ সালে।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে কে প্রথম ‘বিশ্বকবি অভিধায় অভিষিক্ত করেন?
উত্তরঃ পন্ডিত রোমান ক্যাথলিক ব্রহ্মবান্ধব উপাধ্যায়।
প্রশ্নঃ কোন বাঙালি প্রথম গ্রামীণ ক্ষুদ্রঋণ গ্রাম উন্নয়ন প্রকল্প প্রতিষ্ঠা করেন?
উত্তরঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ কোন ছদ্মনামে বেশি সাহিত্য রচনা করতেন?
উত্তরঃ 'ভানুসিংহ ঠাকুর'।
প্রশ্নঃ : তিনি মূলত ক'টি ছদ্মনামে লেখালেখি করতেন?
উত্তরঃ নয়টি।
প্রশ্নঃ তাঁর নয়টি ছদ্মনাম কী কী?
উত্তরঃ 'ভানুসিংহ ঠাকুর', 'অকপটচন্দ্র ভাস্কর', /আন্নাকালী পাকড়াশী', 'দিকশূন্য ভট্টাচার্য', 'নবীন কিশোর শর্মণ', 'ষষ্ঠীচরণ দেবশর্মা', 'বাণীবিনোদ বিদ্যাবিনোদ', 'শ্রীমতী কনিষ্ঠা', 'শ্রীমতী মধ্যমা'।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ কলকাতা থেকে কত সালে কুষ্টিয়ার শিলাইদহ আসেন?
উত্তরঃ ১৮৯২ সালে।
প্রশ্নঃ এ সময় তিনি কোন্ কাব্যগ্রন্থ রচনা করেন?
উত্তরঃ 'সোনারতরী'।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কত বার ঢাকায় আসেন?
উত্তরঃ ২ বার।
প্রশ্নঃ কোন কোন সালে রবীন্দ্রনাথ ঢাকায় আসেন?
উত্তরঃ ১৮৯৮ সালে প্রথমবার, ১৯২৬ সালে দ্বিতীয়বার।
প্রশ্নঃ কত তারিখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে রবীন্দ্রনাথ তাঁর প্রথম বক্তৃতা দেন, কোথায়?
উত্তরঃ ১৯২৬ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি, কার্জন হলে।
প্রশ্নঃ এই বক্তৃতার শিরোনাম কী ছিল?
উত্তরঃ 'The Meaning of Art'.
প্রশ্নঃ কত তারিখে তিনি দ্বিতীয় বক্তৃতা দান করেন?
উত্তরঃ ১৯২৬ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথের দ্বিতীয় বক্তৃতার শিরোনাম কী ছিল?
উত্তরঃ 'The Rule of the Giant'.
প্রশ্নঃ এই বক্তৃতা কোন স্থানে অনুষ্ঠিত হয়?
উত্তরঃ প্রথম বক্তৃতার মত দ্বিতীয় বক্তৃতাও হয় কার্জন হলে।
প্রশ্নঃ কত তারিখে রবীন্দ্রনাথ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মুসলিম হলের (বর্তমানে সলিমুল্লাহ হল) ছাত্রদের সংবর্ধনায় যোগ দেন?
উত্তরঃ ১৯২৬ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি।
প্রশ্নঃ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের ছাত্রদের অনুরোধে রবীন্দ্রনাথ কোন গীতিকবিতা রচনা করেন?
উত্তরঃ 'বাসন্তিকা' নামের গীতিকবিতা।
প্রশ্নঃ গীতিকবিতাটির প্রথম পঙক্তি চারটি কী?
উত্তরঃ 'এই কথাটি মনে রেখো/তোমাদের এই হাসি খেলায়/আমি এ গান গেয়েছিলেম/জীর্ণ পাতা ঝরার বেলায়।'
প্রশ্নঃ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে কী ডিগ্রি প্রদান করে?
উত্তরঃ 'ডক্টর অব লিটারেচার' ('ডি.লিট')।
প্রশ্নঃ কত তারিখে কিভাবে এই ডিগ্রি প্রদান করা হয়?
উত্তরঃ ১৯৩৬ সালের ২৯ জুলাই, বিশেষ সমাবর্তনের মাধ্যমে।
প্রশ্নঃ রবীন্দ্রনাথ কত সালে মৃত্যুবরণ করেন?
উত্তরঃ ১৯৪১ খ্রিস্টাব্দের ৭ আগস্ট অনুসারে ১৩৪৮ বঙ্গাব্দের ২২ শ্রাবণ, দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে।




         




Sunday, 7 July 2019

বাংলা ভাষা তথা সাহিত্যের প্রথম

বাংলা ভাষা তথা সাহিত্যের প্রথম


বাংলা ভাষা তথা সাহিত্যের প্রথম :

১/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম নাটক :
»»»তারাপদ শিকদারের 'ভদ্রার্জুন'

২/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম সামাজিক নাটক :
»»»রামনারায়ণ তর্করত্নের 'কুলীনকুল সর্বস্ব'

৩/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম স্বার্থক নাট্যকার :
»»»মাইকেল মধুসূদন দত্ত

৪/ বাংলা ভাষায় প্রথম আধুনিক নাটক :
»»»মাইকেল মধুসূদন দত্তের 'শর্মিষ্ঠা'

৫/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম স্বার্থক কমেডি :
»»»মাইকেল মধুসূদন দত্তের 'পদ্মাবতী'

৬/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম ট্রাজেডি :
»»»যোগীন্দ্রনাথ গুপ্তের 'কীর্তিবিলাস'

৭/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম স্বার্থক ট্রাজেডি :
»»»মাইকেল মধুসূদন দত্তের 'কৃষ্ণকুমারী'

৮/বাংলা সাহিত্যের প্রথম প্রহসনধর্মী নাটক : মাইকেল »»»মধুসূদন দত্তের 'একেই কি বলে সভ্যতা'

৯/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম মহাকাব্য :
»»»মাইকেল মধুসূদন দত্তের 'মেঘনাথবধ' কাব্য

১০/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম সনেট রচয়িতা :
»»»মাইকেল মধুসূদন দত্ত

১১/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম মুসলিম নাট্যকার :
»»»মীর মশাররাফ হোসেন

১২/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম উপান্যাস(অবাঙালী কতৃক রচিত) :
»»»হ্যানা কেথেরিন ম্যালেন্সের "ফুলমনি ও করুনার বিবরন "

১৩/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম উপন্যাস(বাঙালী কতৃক রচিত) :
»»»প্যারীচাঁদ মিত্রের 'আলালের ঘরের দুলাল'

১৩/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম রোম্যান্টিক উপন্যাস :
»»»বঙ্কিমচন্দ্রের 'কপালকুণ্ডলা'

১৪/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম ব্যঙ্গ উপন্যাস :
»»»ইন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়ের 'কল্পতরু'

১৫/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম মহিলা ঔপন্যাসিক :
»»»স্বর্ণকুমারী দেবী

১৬/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম গীতিকবি :
»»»বিহারীলাল চক্রবর্তী

১৭/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম মুসলিম মহিলা কবি:
»»»মাহমুদা খাতুন সিদ্দিকা

১৮/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম ছোটগল্প :
»»»পূর্ণচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়েরর ' মধুমতী'

১৯/ প্রথম বাংলা ব্যকরণ:
»»»পর্তুগীজ ধর্মযাজক মানোএল দ্য আসসুম্পসাঁউ

(Manoel da Assumpcam) বাংলা ভাষার প্রথম

ব্যাকরণ রচনা করেন। ১৭৪৩ খ্রিস্টাব্দে তাঁর লেখা

Vocabolario em idioma Bengalla, e Portuguez

dividido em duas partes প্রথম বাংলা ব্যাকরণ।

২০/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম পত্রসাহিত্যিক :
»»»রামরাম বসু

২১/ বাংলা ভাষার প্রথম পত্রিকা :
»»»'দিগদর্শন'

২২/ বাংলা ভাষায় রচিত প্রথম প্রবন্ধগ্রন্থ :
»»»'বেদান্ত'

২৩/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম মুদ্রিতগ্রন্থ :
»»»উইলিয়াম কেরির 'কথোপকথন'

২৪/ আধুনিক বাংলা সাহিত্যের প্রথম কাব্যগ্রন্থ :
»»»'পদ্মিনী উপাখ্যান'

২৫/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম যতি/বিরাম চিহ্নের ব্যবহারকারী :
»»»ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর

২৬/ বাংলা সাহিত্যের প্রথম সনেট :
»»»'চতুর্দশপদী কবিতাবলী'

২৭/বাংলা সাহিত্যের প্রথম গীতিকাব্য:
»»»'স্বপ্নদর্শন'

Monday, 1 July 2019

ব্যাকরণের গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের উত্তর



❄️ব্যাকরণের উচ্চতর পর্যায়ে আলোচিত হয় কোনটি? = অর্থ তত্ত্ব
❄️নিচের কোনটি বাংলা ব্যাকরণের শাখা নয়? = ভূতত্ত্ব
❄️ ব্যাকরণ" কোন ভাষার শব্দ? = সংস্কৃত
❄️ব্যাকরণের প্রধান কাজ হচ্ছে? = ভাষার বিশ্লেষণ
❄️সন্ধি, ব্যাকরণের কোন অংশের অালোচ্য বিষয়? = ধ্বনিত্ব
❄️ ক্রিয়ামূল, ক্রিয়ারকাল ও পুরুষ ইত্যাদি ব্যাকরণের কোন অংশের আলোচ্য বিষয়? = রূপতত্ত্ব
❄️ব্যাকরণের কোন অংশে "কারক" সম্বন্ধে আলোচনা করা হয়? = রূপতত্ত্বে
❄️ বচন" ব্যাকরণের কোন অংশের অালোচ্য বিষয়? = রূপতত্ত্বে
❄️ গৌড়ীয় বাংলা ব্যাকরণ " রচনা করেছেন? = রাজা রামমোহন রায়,
❄️ রাজা রামমোহন রায়, রচিত বাংলা ব্যাকরণ গ্রন্থটির নাম কি? = গৌড়ীয় ব্যাকরণ
❄️বাংলা ভাষায় প্রথম ব্যাকরণ রচনা করেন? = ম্যানুয়েল দ্য আসসুম্পসাও
❄️ বাংলা ব্যাকরণ প্রথম রচনা করেন? = এন বি হ্যালহেড
❄️ কে সর্বপ্রথম বাংলা টাইপ সহযোগে বাংলা ব্যাকরণ মুদ্রণ করেন?= বঅসি হ্যালহেড
❄️বাংলা ভাষায় রচিত প্রথম ব্যাকরণ গ্রন্থের রচয়িতা? = রামমোহন রায়
❄️রাজা রামমোহন রচিত বাংলা ব্যাকরণ নাম কি? = গৌড়ীয় ব্যাকরণ
❄️ বাংলা ভাষার ব্যাকরণ কে লিখেন? = ইশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর
❄️"ভাষা প্রকাশ বাঙ্গালা ব্যাকরণ" কে রচনা করেন? = সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায়
❄️পাণিনি কে ছিলেন? = বৈয়াকরণিক
❄️বাংলা ভাষায় প্রথম ব্যাকরণ রচনা করেন কে?= রাজা রামমোহন
❄️ব্যাকরণ মঞ্জরী কার লেখা? = ড.মুহম্মদনএনামুল হক ❄️ব্যাকরণ শব্দের সঠিক অর্থ কোনটি? = বিশেষ ভাবে বিশ্লেষণ
❄️ব্যাকরণগত দিক থেকে কোন শব্তটা সঠিক? = সঞ্চিতা, সঞ্চয়িতা
❄️ ভাষা প্রকাশ বাংলা ব্যাকরণ " কে রচনা করেন?= সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায়
❄️বাংলা ব্যাকরণ প্রথম রচনা করেন? = পর্তুগিজ ভাষায় প্রথম বাংলা ব্যাকরণ রচনা করেন "ম্যানুয়েল দ্য আসসুম্পসাঁও (১৭৪৩সালে)। বাংলা ব্যাকরণ দ্বিতীয় গ্রন্থ রচনা করেন ১৭৭৮ সালে এন বি হ্যালহেড (ইংরেজি ও বাংলা ভাষায়)
❄️ব্যাকরণের প্রধান কাজ হচ্ছে? = ভাষার বিশ্লেষণ।
❄️যিনি ভালো ব্যাকরণ জানেন তিনি হলেন? = বৈয়াকরণ
❄️ণ-ত্ব ও ষ-ত্ব বিধান বাংলা ব্যাকরণের কোন অংশের আলোচ্য বিষয়? = ধ্বনিতত্ত্ব
❄️ক্রিয়ামূল, ক্রিয়ার কাল, ও পুরুষ ইত্যাদি ব্যাকরণের কোন অংশের বিষয়? = রূপতত্ত্ব
❄️গৌড়ীয় বাংলা ব্যাকরণ রচনা করেছেন? = রামনারায়ণ তর্করত্ম
❄️বাংলা ব্যাকরণের নিয়ম অনুসারে কোন পদ ছাড়া বাক্য গঠন করা যায় না? = ক্রিয়া পদ
❄️ ইংরেজি ব্যাকরণের Adverb কে বাংলা ব্যাকরণে বলে? = ভাববিশেষণ
❄️পাণিনি কে ছিলেন? = বৈয়াকরণিক
❄️ব্যাকরণ ভাষাকে নির্দেশ করে? = ব্যাকরণ ভাষাকে বর্ণনা করে
❄️ ভাষার অভ্যন্তরীণ নিয়ম শৃঙ্খলার আবিষ্কারের নামই? = ব্যাকরণ
৩ব্যাকরণ শব্দের ব্যুৎপত্তি কোনটি?= বি+আ+/কৃ+অন
❄️ বাংলা ভাষার প্রথম ব্যাকরণবিদ কে ছিলেন? = মনোএর ডি আস্সুম্পাসাঁও
❄️)ভাষা প্রকাশ বাঙ্গালা ব্যাকরণ কে রচনা করেন? = সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায়
❄️মুগ্ধবোধং ব্যাকরণম্" গ্রন্থটির রচয়িতা কে?= বোপদেব গোস্বামী
❄️ব্যাকরণের কোন অংশে বর্ণমালার বিষয় আলোচিত হয়? = ধ্বনিতত্ত্বে
❄️ ব্যাকরণ শব্দটি হলো? = তৎসম
❄️ ইশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর প্রণীত ব্যাকরণ গ্রন্থের নাম কি? = ব্যাকরণ কৌমুদী
❄️অলি-গলি " শব্দটিকে ব্যাকরণের সংজ্ঞায় বলে হয়? = দ্বিরুক্ত অনুচর শব্দ
❄️ব্যাকরণ" শব্দের সঠিক অর্থ কোনটি? = বিশেষভাবে বিশ্লেষণ
❄️বাগধারা ব্যাকরণের কোন অংশে আলোচিত হয়? = বাক্যতত্ত্ব
❄️ব্যঞ্জনবর্ণের সংক্ষিপ্ত রূপকে কী বলে? = ফলা
❄️-কার' কিসের চিহ্ন? = স্বরধ্বনির সংক্ষিপ্ত
❄️শব্দ, শব্দের গঠন, বচন, লিঙ্গ, কারক ইত্যাদি কোন তত্ত্বের আলোচ্য বিষয়? = রূপ তত্ত্ব
❄️সন্ধি ব্যাকরণের কোন অংশের আলোচ্য বিষয়? = ধ্বনিতত্ত্ব
❄️বাংলা ব্যাকরণ প্রথম যে ভাষায় লেখা হয়?= পুর্তুগিজ

❄️ ভাষার প্রধান উপাদন? = শব্দ
❄️ভাষার মৌলিক উপাদান কোনটি? = ধ্বনি
❄️শব্দের ক্ষুদ্রতম অংশকে বলা হয়? = বর্ণ
৫৫) ভাষার মূল উপাদান হ'ল? = ধ্বনি, শব্দ বাক্য
❄️ রাজ রামমোহন রায় প্রাণীত ব্যাকরণের নাম কি? = গৌড়ীয় ব্যাকরন বাক্যের মৌলিক উপাদান কোনটি? = শব্দ
❄️ কে দার্শনিক - বিচারমূলক ব্যাকরণকে ব্যাকরণের একটি শ্রেণি বলে মনে করেন? = ড.মুহম্মদ এনামুল হক,
❄️শব্দের অর্থযুক্ত ক্ষুদ্রাংশকে কী বলা হয়? = বর্ণ।
❄️ কোন শব্দটি ব্যাকরণের আলোচ্যসূচিতে পড়ে না?= মনস্তত্ত্ব
❄️গুরুচণ্ডলী দোষদুষ্ট শব্দ কোনটি? = শবপোড়া
❄️❄️ সন্ধি ব্যাকরণের কোন অংশের আলোচ্য বিষয়? = ধ্বনিতত্ত্ব
❄️❄️গৌড়ীয় ব্যাকরণ -কার লেখা? = রামমোহন রায়
❄️❄️ ভাষার মূল উপাদান কোনটি? = ধ্বনি
❄️ ক্রিয়ার কাল, ব্যাকরণের কোন অংশের আলোচ্য বিষয়? = রূপতত্ত্ব
❄️ব্যাকরণ শব্দের সঠিক অর্থ কোনটি? = বিশেষভাবে বিশ্লেষণ
❄️ ব্যাকরণের কোন অংশে কারক ও সমাস আলোচিত হয়? = শব্দ তত্ত্বে
❄️ অক্ষয় বা তার চিহ্নকে বলে? = বর্ণ
❄️সাধু ভাষ ও চলিত ভাষার প্রধান পার্থক্য? = ক্রিয়া পদের ও সর্বনামে
❄️শব্দের ক্ষুদ্রতম একক কোনটি? = ধ্বনি
❄️কোনটি প্রাচীন বাংলা ব্যাকরণ? = গৌড়ীয় ব্যাকরণ
❄️সারাংশ বা সারমর্ম সাধারণত কয়টি অনুচ্ছেদ লিখতে হয়? = একটি
❄️ বাংলা ব্যাকরণ প্রথম কোন ভাষায় লেখা হয়? = পুর্তুগিজ
❄️ ব্যাকরণের কাজ কি? = ভাষার অভ্যন্তরীণ শৃঙ্খলা আবিষ্কার করা
❄️বাংলা ভাষার ব্যাকরণ প্রথম কে লেখেন? = উইলিয়াম কেরি
❄️রামমোহন রায় এর রচিত ব্যাকরণ গ্রন্থের নাম কি? = গৌড়ীয় ব্যাকরণ
❄️ ব্যাকরণ শব্দের বুৎপত্তিগত অর্থ কী? = বিশ্লেষণ
❄️ বাংলা বর্ণমালায় যৌগিক স্বরধ্বনি কয়টি? = ২ টি ❄️সন্ধি ব্যাকরণের কোন অংশে আলোচিত হয়?= ধ্বনিতত্ত্বে
❄️ নিচের কোনটি ব্যাকরণের পাণিনি ধারা? = শাকতায়নী
❄️Vocabulary Em Idioma Bengalla E portuguez :Dividio Emduas parts বইটি মুদ্রিত হয় কোন হরফে? = রোমান
❄️ ড.মুহাম্মদ শহীদুলাহ কতসালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক হিসাবে নিযুক্ক হন? = ১৯২১ সালে।
❄️ব্যাকরণ শব্দদের সঠিক অর্থ কোনটি? = বিশেষভাবে বিশ্লেষণ
❄️ব্যাকরণের কাজরকি? = ভাষার অভ্যন্তরীণ শৃঙ্খলা আবিষ্কার করা
❄️ব্যাকরণের প্রধান কাজ হচ্ছে? = ভাষার বিশ্লেষণ
❄️ বাংলা ভাষার ব্যাকরণ কে লিখেন? = সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায়
❄️ব্যাকরণ -এর মূল ভিত্তি কি? = ভাষা
❄️ উপমহাদেশের প্রথম ছাপাখানা কোন সালে স্থাপতি হয়েছিল? = ১৪৯৮ খিস্টাব্দে
❄️কে সর্বপ্রথম বাংলা টাইপ সহযোগে বাংলা ব্যাকরণ মুদ্রণ করেন?= ব্রাসি হ্যালহেড
❄️ কোনটি প্রাচীন বাংলার ক্যাকরণ? = A Grammar of the Bengali Language
❄️রাজা রামমোহন রায় রচিত ব্যাকরণের নাম কি? = গৌড়ীয় ব্যাকরণ
❄️বাংলা ব্যাকরণ প্রথম রচনা করেন?= এন বি হ্যালহেড
❄️বাংলা ভাষায় প্রথম ব্যাকরণ রচনা করেন কে?= মানুয়েল ডি আসসুম্পসাম
❄️বাংলা ভাষায় প্রথম ব্যাকরণ কে রচনা করেন? = মানুয়েল ডি আসসুম্পসাম
❄️ভাষা প্রকাশ বাঙ্গলা ব্যাকরণ কে রচনা করেছেন? =সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায়
❄️ ব্যাকরণ কোন ভাষার শব্দ? = সংস্কৃত
❄️বাংলা ব্যাকরণের বয়স কত? = ২৫০ বছর
❄️ ড.মুহাম্মাদ এনামুল হক রচিত ব্যাকরণ নাম? = ব্যাকরণ মঞ্জুরী
❄️ কোন প্রখ্যাত ইংরেজ পন্ডিত ইংরেজিতে বাংলা ভাষার ব্যাকরণ রচনা করেন? = ব্রাসি হ্যালহেড
❄️কোন বাঙালি বাংলা ব্যাকরণ ইংরেজিতে রচনা করেন? = রাজা রামমোহন রায়
❄️রাজা রামমোহন রায় রচিত "গৌড়ীয় ব্যাকরণ কত সালে বাংলায় অনূদিত হয়? = ১৮৩৩ সালে
❄️ উইলিয়াম কেরি রচিত A Grammar of the Bengali Language গ্রন্থটি কত সালে প্রকাশিত হয়? = ১৮০১ সালে।

Thursday, 4 April 2019

কবি ও লেখকদের ছদ্মনাম

Thursday, 31 January 2019

বিশিষ্ট ব্যক্তি ও তাঁদের উপনাম


#Important #gk #knowledge #exam
******বিশিষ্ট ব্যক্তি ও তাঁদের উপনাম*****

⭕রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর→বিশ্বকবি।☜

⭕জসিম উদ্দিন→পল্লীকবি।☜

⭕জয়নুল আবেদীন→শিল্পাচার্য।☜

⭕চিত্তরঞ্জন দাস→দেশ বন্ধু।☜

⭕হোমার→ব্লাইন্ড বার্ড।☜

⭕করম চাঁদ গান্ধী→মহাত্মা। ☜

⭕সূর্যসেন→মাস্টার দা। ☜

⭕হো চি মীন→আংকেল হো।☜

⭕এডলফ হিটলার→ফ্রুয়েরার। ☜

⭕সুভাষ চন্দ্র বসু→নেতাজী। ☜

⭕কামাল আতাতুর্ক→গ্রে উলফ।☜

⭕বেনজীর ভুট্টো→ডটার অব দ্যা ইষ্ট।☜

⭕ফজলুল হক→শের-ই-বাংলা। ☜

⭕সেমুয়েল লেঈইন→মার্ক টুয়েন।☜

⭕চে গুয়েভারা→তে আর্নোসেটা। ☜

⭕জর্জ বার্নাড শ→জি বি এস।☜

⭕শেখ মুজিবুর রহমান→বঙ্গবন্ধু।☜

⭕মার্গারেট থ্যাচার→লৌহ মানবী।☜

⭕লাল বাহাদুর শাস্ত্রী→শান্তির মানুষ। ☜

⭕কাজী নজরুল ইসলাম→বিদ্রোহী কবি। ☜

⭕আব্দুল গাফফার খান→সীমান্ত গান্ধী। ☜

⭕জওহরলাল নেহেরু→চাচা/পান্ডিতজী।☜

⭕নেপোলিয়ান বোনাপাট→ম্যান অব ডিসটিনি☜

⭕সরোজিনী নাইডু→নাইটিংগেল অব ইন্ডিয়া।☜

⭕প্রিন্স বিসমার্ক→আধুনিক জার্মানির জনক।☜

⭕ডিউক অব ওয়েলিংটন→আয়রন ডিউক। ☜

⭕মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ→কায়েদে আজম☜।

⭕ফ্লোরেন্স নাইটিংগেল→লেডি উইথ দি ল্যাম্প☜

⭕জিওফ্রে চসার→ইংরেজি কাব্যের জনক।☜

⭕রাণী এলিজাবেথ (প্রথম)→কুমারী রাণী☜

⭕উইলিয়াম সেক্সপিয়ার→বার্ড অব হ্যাভেন।☜

Prisma Theory

Donate with