Best Educational, Knowledgeable and Important site. Rail, WBCS, Bank, Government, SSC, PRIMARY AND UPPER PRIMARY job information site. চাকরির সেরা ঠিকানা ।

Stay Conneted

Story

Showing posts with label General Science. Show all posts
Showing posts with label General Science. Show all posts

Saturday, 16 November 2019

Life Science - 1



Life Science (জীবন বিজ্ঞান) :


১. প্রশ্ন: মেডুলা কিসের অংশ?
উত্তর: মস্তিষ্কের
২. প্রশ্ন: হিমােগ্লোবিন কোন জাতীয় পদার্থ?
উত্তর: আমিষ
৩. প্রশ্ন: কোন প্রানীকে মরুভূমির জাহাজ বলা হয়?
উত্তর: উট
৪. প্রশ্ন: আকৃতি, অবস্থান ও কাজের প্রকৃতিভেদে আবরণী টিস্যু কত ধরনের?
উত্তর: ৩
৫. প্রশ্ন: হৃৎপিণ্ড কোন ধরনের পেশি দ্বারা গঠিত?
উত্তর: বিশেষ ধরনের অনৈচ্ছিক
৬. প্রশ্ন: রক্তে হিমােগ্লোবিনের কাজ কি?
উত্তর: অক্সিজেন পরিবহন করা
৭. প্রশ্ন: মানবদেহে শক্তি উৎপাদনের প্রধান উৎস –
উত্তর: শ্বসন
৮.প্রশ্ন: Photosynthesis takes place in –
উত্তর: Green parts of the plants
৯. প্রশ্ন: ইউরিয়া সার থেকে উদ্ভিদ কি খাদ্য উপাদান গ্রহণ করে?
উত্তর: নাইট্রোজেন
১০. প্রশ্ন: ডায়াবেটিস রােগ সম্পর্কে যে তথ্যটি সঠিক নয় তা হল-
উত্তর: চিনি জাতীয় খাবার খেলে এ রােগ হয়
১১. প্রশ্ন: Dengue fever is spread by -
উত্তর: Aedes aegypti mosquito
১২. প্রশ্ন: সুষম খাদ্যের উপাদান কয়টি?
উত্তর: ৬ টি
১৩. প্রশ্ন: ইনসুলিন নিঃসৃত হয় কোথা থেকে?
উত্তর: অগ্ন্যাশয় হতে
১৪. প্রশ্ন: হাড় ও দাঁতকে মজবুত করে-
উত্তর: ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস
১৫. প্রশ্ন: অতিরিক্ত খাদ্য থেকে লিভারে সঞ্চিত সুগার হল –
উত্তর: গ্লাইকোজেন
১৬. প্রশ্ন: প্রানী জগতের উৎপত্তি ও বংশ সম্বন্ধীয় বিদ্যাকে বলে –
উত্তর: জেনেটিক্স
১৭. প্রশ্ন: কোন খাদ্যে প্রােটিন বেশি?
উত্তর: মসুর ডাল
১৮. প্রশ্ন: কোন ডালের সঙ্গে ল্যাথারাইজম রােগের সম্পর্ক আছে?
উত্তর: খেসারী
১৯. প্রশ্ন: জমির লবণাক্ততা নিয়ন্ত্রণ করে কোনটি ?
উত্তর: জল সেচ
২০. প্রশ্ন: জলের জীব হয়েও বাতাসে নিঃশ্বাস নেয়—
উত্তর: শুশুক

২১. প্রশ্ন: যে সব অণুজীব রােগ সৃষ্টি করে তাদের বলা হয়-
উত্তর: প্যাথজেনিক
২২. প্রশ্ন: মস্তিষ্ক কোন তন্ত্রের অঙ্গ?
উত্তর: স্নায়ুতন্ত্রের
২৩. প্রশ্ন: ভাইরাস জনিত রােগ নয় কোনটি?
উত্তর: নিওমােনিয়া
২৪. প্রশ্ন: প্রাণী জগতের উৎপত্তি ও বংশ সম্বন্ধীয় বিদ্যাকে বলে-
উত্তর: ইভােলিওশন
২৫. প্রশ্ন: নিচের কোনটি আমিষ জাতীয় খাদ্য হজমে সাহায্য করে?
উত্তর: ট্রিপসিন।
২৬. প্রশ্ন: মানুষের রক্তে লােহিত কণিকা কোথায় সঞ্চিত থাকে?
উত্তর: প্লিহাতে।
২৭. প্রশ্ন: কোনটি এ্যান্টিবায়ােটিক?
উত্তর: পেনিসিলিন
২৮. প্রশ্ন: জন্ডিসে আক্রান্ত হয় –
উত্তর: যকৃত
২৯. প্রশ্ন: সবচেয়ে বড় ভাইরাস হল?
উত্তর: গাে-বসন্তের ভাইরাস
৩০. প্রশ্ন: কোনাে পরিবহন তন্ত্র নেই?
উত্তর: ছত্রাকের
৩১. প্রশ্ন: ঝিনুকের রক্তে কি নেই?
উত্তর: হিমােগ্লোবিন
৩২. প্রশ্ন: গলদা চিংড়ি কোন পর্বের প্রানী?
উত্তর: আথ্রোপােডা
৩৩. প্রশ্ন:মুক্তায় কত ভাগ CaCO3 থাকে?
উত্তর: ৮৮-৯০ ভাগ
৩৪. প্রশ্ন: চিংড়ির চাষকে কি বলে?
Test: Prawn culture
৩৫. প্রশ্ন: ঝিনুক সংগ্রহের আদর্শ সময় কোনটি?
উত্তর: গ্রীষ্মকাল
৩৬. প্রশ্ন: “আমা” শব্দের অর্থ কি?
উত্তর: সাগর কন্যা
৩৭. প্রশ্ন: কত সালে মৎস্য সংরক্ষন আইন প্রনয়ন করা হয়?
উত্তর: ১৯৫০
৩৮. প্রশ্ন: মাছ চাষের জন্য উপকারী পানি হল-
উত্তর: ক্ষার ধর্মী পানি
৩৯. প্রশ্ন: মাছের প্রাকৃতিক খাবার হল-
উত্তর: প্লাংকটন।
৪০. প্রশ্ন: ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র প্রানীকে কি বলে-
উত্তর: জুয়ােপ্ল্যাংকটন

৪১. প্রশ্ন: ব্ল্যাক টাইগার বলা হয় –
উত্তর: বাগদা চিংড়ি
৪২. প্রশ্ন: প্রতিদিন আমরা গড়ে আমিষ খাই কত গ্রাম?
উত্তর: ২১
৪৩. প্রশ্ন: জীবদেহের কাজের একক কি?
উত্তর: কোষ
৪৪. প্রশ্ন: সর্বপ্রথম কোষ আবিষ্কার করেন কে?
উত্তর: রবার্ট হুক
৪৫. প্রশ্ন: টিস্যুর গঠনগত একক কি?
উত্তর: কোষ
৪৬. প্রশ্ন: মানুষের ক্রোমােজোম সংখ্যা কতটি?
উত্তর: ৪৬
৪৭. প্রশ্ন: কত সালে রিকম্বিনেট DNA তৈরি করা হয়?
উত্তর: ১৯৭২
৪৮. প্রশ্ন: প্রানিজগতের জীববৈচিত্র্যকে কি বলে?
উত্তর: প্রানীবৈচিত্র্য
৪৯. প্রশ্ন: Fauna বলতে কি বুঝায়?
উত্তর: প্রানিকূল
৫০. প্রশ্ন: ছত্রাকের কোষ কি দিয়ে তৈরি?
উত্তর: কাইটিন
৫১. প্রশ্ন: DNA কোথায় থাকে?
উত্তর: নিউক্লিয়াসে
৫২. প্রশ্ন: কোনটি একবীজপত্রী উদ্ভিদ নয়।
উত্তর: ছােলা।
৫৩. প্রশ্ন: সবচাইতে দ্রুতগামী পাখি কোনটি?
উত্তর: সুইফট বার্ড
৫৪. প্রশ্ন: বানরের হাত আছে কয়টি?
উত্তর: হাত নেই।
৫৫. প্রশ্ন: কলকাসুন্দা কি?
উত্তর: উপগুল্ম
৫৬. প্রশ্ন: রক্তকোষের উপাদান নয় কোনটি?
উত্তর: হিমােগ্লোবিন
৫৭. প্রশ্ন: হংকং ভাইরাস নামে পরিচিত কোন ভাইরাস?
উত্তর: SARS
৫৮. প্রশ্ন: টয়ালিন কি পরিপাক করে?
উত্তর: শর্করা
৫৯. প্রশ্ন: বিলিরুবিন কোথায় থাকে?
উত্তর: প্লীহায়
৬০. প্রশ্ন: মানব দেহের মােট কশেরুকার সংখ্যা কতটি?
উত্তর: ৩৩

৬১. প্রশ্ন: পেশিগুলাে হাড়ের সাথে কিসের সাহায্যে লেগে থাকে?
উত্তর: লিগামেন্ট
৬২. প্রশ্ন: এইডস কোন ভাইরাসের জন্য হয়
উত্তর: HIV
৬৩. প্রশ্ন: পিত্তপাথর গলাতে ব্যবহার করা হয় ?
উত্তর: রেডিও আইসােটোপ
৬৪. প্রশ্ন: দ্বীবর্ষজীবী উদ্ভিদ নয় কোনটি?
উত্তর: কচু
৬৫. প্রশ্ন: মাশরুম নামে পরিচিত কোনটি ?
উত্তর: এগারিকাস
৬৬. প্রশ্ন: Pteris কে বলা হয়
উত্তর: সানফার্ন
৬৭. প্রশ্ন: দ্বিপদ নামকরনের কয়টি অংশ থাকে ?
উত্তর: ২।
৬৮. প্রশ্ন: পেনিলিসিলিন আবিষ্কার করেন কে ?
উত্তর: আলেকজান্ডার ফ্লেমিং
৬৯. প্রশ্ন: Father of Bacteriology বলা হয় কাকে?
উত্তর: লুই পাস্তুর
৭০. প্রশ্ন: প্রথম জীবনের উদ্ভিদ হয় কোন পরিবেশে ?
উত্তর: জলজ
৭১. প্রশ্ন: জীবন্ত জীবাশ্ম কোনটি
Tes: cycas
৭২. প্রশ্ন: biology শব্দের প্রবর্তক কে?
উত্তর: ল্যামার্ক
৭৩. প্রশ্ন: ইবােলা ভাইরাস কিসের নামে নামকরণ করা হয় ?
উত্তর: নদী।
৭৪. প্রশ্ন: ভাইরাস জনিত রােগ নয় কোনটি ?
উত্তর: জ্বর
৭৫. প্রশ্ন: মানব দেহে জ্বীনের সংখ্যা কত?
উত্তর: ৪০০০০
৭৬. প্রশ্ন: সরল টিস্যু কত প্রকার ?
উত্তর: ৩
৭৭. প্রশ্ন: DNA আবিষ্কার হয় কত সালে?
উত্তর: ১৮৬৮
৭৮. প্রশ্ন: নাইট্রোজেন বেস কয় ধরনের ?
উত্তর: ২
৭৯. প্রশ্ন: জৈবপ্রযুক্তির অন্যতম হাতিয়ার বলা হয় কাকে?
উত্তর: প্লাজমিড
৮০. প্রশ্ন: উদ্ভিদের গৌন উপাদান কয়টি ?
উত্তর: ৮
৮১. প্রশ্ন: কোনটি গৌন উপাদান না ?
উত্তর: Mg
৮২. প্রশ্ন: ম্যালেরিয়া রােগ হয় কিসের অভাবে?
উত্তর: অ্যানােফিলিস মশা।
৮৩. প্রশ্ন: কত সালে প্রথম ব্যাকটেরিয়ার নামকরন করা হয়?
উত্তর: ১৯২৭
৮৪. প্রশ্ন: যক্ষ্মার প্রতিষেধক কোনটি?
উত্তর: B.C.G
৮৫. প্রশ্ন: E.Coli মানবদেহের কোথায় থাকে?
উত্তর: অন্ত্রে
৮৬. প্রশ্ন: পচা রােগ হয় কোন সবজির?
উত্তর: আলু।
৮৭. প্রশ্ন: উদ্ভিদের নামকরন করে কোন প্রতিষ্ঠান?
উত্তর: ICBN
৮৮. প্রশ্ন: শ্রেণী বিন্যাস ধাপ কয়টি?
উত্তর: ৭টি
৮৯. প্রশ্ন: Apis Indica কিসের বৈজ্ঞানিক নাম?
উত্তর: মৌমাছি
৯০. প্রশ্ন: এক কোষী নয় কোনটি?
উত্তর: মেটাজোয়া।
৯১. প্রশ্ন: বহুকোষী প্রাণী নয় কোনটি?
উত্তর: প্রােটোজোয়া।
৯২. প্রশ্ন: ফলের কয়টি অংশ থাকে?
উত্তর: ২টি
৯৩. প্রশ্ন: এপিগাইনাস ফুল-
উত্তর: লাউ, কুমড়া, ঝিঙ্গা ইত্যাদি।
৯৪. প্রশ্ন: রক্তে PH এর মান কত?
উত্তর: ৭.২-৭.৪
৯৫. প্রশ্ন: রক্তজমাট বাধতে সাহায্যে করে কোন ধাতু?
উত্তর: ক্যালসিয়াম।
৯৬. প্রশ্ন: নাড়ির স্পন্দন প্রবাহিত হয় কিসে?
উত্তর: ধমনীতে
৯৭. প্রশ্ন: ব্যাঙের হৃৎপিণ্ড কয় প্রকোষ্ঠ বিশিষ্ট ?
উত্তর: ৩
৯৮. প্রশ্ন: মেডুলা কিসের অংশ?
উত্তর: মস্তিষ্কের
৯৯. প্রশ্ন: দৃষ্টি এবং শ্রবণের সাথে জড়িত
উত্তর: মধ্য মস্তিষ্ক
১০০. প্রশ্ন: খনিজ লবণ কি করে?
উত্তর: জৈবিক কাজে অংশগ্রহণ করে







         




Friday, 18 October 2019

General Science at a glance




🏹 ⏹️General Science at a glance (একনজরে জেনারেল সাইন্স) ⏹️


⬇️অক্সিজেন এর একটি প্রাকৃতিক উৎস প্রক্রিয়া হল
 👉সালোকসংশ্লেষ।
⬇️বায়ু যে সবদিকে চাপ দেয় সর্বপ্রথম তা প্রমাণ করেন
👉অটোভন গেরিক।
⬇️তাপের সর্বাপেক্ষা সুপরিবাহী ধাতু হলো
👉 রুপো।
⬇️সবচেয়ে হালকা ধাতু হলো
👉 লিথিয়াম।
⬇️যে ধাতু জলে দিলে জ্বলে ওঠে সেটি হল
👉সোডিয়াম।
⬇️রাসায়নিক বিক্রিয়ায় অংশ নেয়
👉ইলেকট্রন।
⬇️পরমাণুর সবচেয়ে হালকা কণাটি হল
👉ইলেকট্রন।
⬇️পরমাণুর নিস্তড়িত কণাটির নাম হল

👉 নিউট্রন।
⬇️সবচেয়ে হালকা অথবা বায়ুর চেয়ে হালকা গ্যাসটি হলো
👉 হাইড্রোজেন।
⬇️ডটস (DOTS) পদ্ধতিতে যে রোগের চিকিৎসা করা হয় সেটি হল
👉 যক্ষা।
⬇️মানবদেহের ক্ষুদ্রতম কোষ
👉 লিম্ফোসাইট।
⬇️কোন ব্যাকটেরিয়া কোষে অনুপস্থিত
 👉নিউক্লিয়াস।
⬇️জবা,গোলাপ প্রভৃতি ফুলের পাপড়ির বর্ণবৈচিত্রের জন্য দায়ী প্লাস্টিডটির নাম হল
👉 ক্রোমোপ্লাস্ট।
⬇️সিলিয়া হলো আদ্যপ্রাণীর
 👉গমনাঙ্গ।
⬇️মানুষের দেহে ভিটামিন B 12 তৈরি হয়
👉ক্ষুদ্রান্ত্রে।
⬇️মহাকাশযানে যে অণুজীব ব্যবহার করা হয় সেটি হল 👉শৈবাল।
⬇️অ্যান্টি ডায়াবেটিক হরমোন বলা হয়
👉 ইনসুলিনকে।
⬇️সবচেয়ে হালকা নিষ্ক্রিয় গ্যাসটি হল
 👉হিলিয়াম।
⬇️তাপের সবচেয়ে সুপরিবাহী ধাতু হলো
👉সোনা।
⬇️তড়িৎ পরিবাহী একটি অধাতু হলো
👉গ্রাফাইট।
⬇️যে অধাতু বেগুনি রংয়ের বাষ্প দেয় সেটি হল
👉আয়োডিন l






         



Sunday, 15 September 2019

Important Question and Answer of General Knowledge






Important Question and Answer of General Knowledge :



১।পরিকল্পনা কমিশন হল – একটি সংবিধান বহির্ভূত এবং অবিধিবদ্ধ সংস্থা।

২।কবে ভারতে কোম্পানি শাসনের অবসান ঘটে? – ১৮৫৮ সালে।।

 ৩।কানহা ন্যাশনাল পার্ক অবস্থিত – মধ্যপ্রদেশে।

৪।আগা খান কাপকোন খেলার সঙ্গে সম্পর্কিত? – হকি।

৫ । ভারতীয় সংবিধানের দশম তপশিল (10th Schedule) কীসের সঙ্গে সম্পর্কিত? — দলত্যাগ বিরােধী ব্যবস্থা।

৬। রামচরিতগ্রন্থের রচয়িতা হলেন – সন্ধ্যাকর নন্দী।

৭। আয়তনে ভারত পৃথিবীর কততম দেশ? – সপ্তম।

৮। পেট্রোলের রাসায়নিক নাম কী? — গ্যাসােলিন।

 ৯। ভিটামিন B এর বিজ্ঞানসম্মত নাম হল সায়ানােকোবালামিন।

১০। মহাত্মা গান্ধি ভারতে তাঁর প্রথম সত্যাগ্ৰহ আন্দোলন করে এবং কোথায় শুরু করেন? – ১৯১৭ সালে বিহারের চম্পারনে।

  ১১। সংসদ সদস্য না হয়েও কতদিন প্রধানমন্ত্রী থাকা যায়? — ৬ মাস।

 ১২। মন্ত্রিগণ যৌথভাবে দায়িত্বশীল থাকেন লােকসভার কাছে।

১৩। নাদির শাহর ভারত আক্রমণকালে দিল্লির সম্রাট ছিলেন—মহম্মদ শাহ।

১৪। পাল সাম্রাজ্যের দ্বিতীয় প্রতিষ্ঠাতা কাকে বলা হয়?—প্রথম মহীপালকে।

১৫। ওয়েনগঙ্গা কোন নদীর উপনদী ? – গােদাবরী।

১৬। আপদকালীন হরমােন বলা হয় – অ্যাড্রিনালিনকে।

১৭। রাষ্ট্রপতির বিল বাতিল করার ক্ষমতাকে বলা হয় – ভেটো ক্ষমতা।

১৮। চন্দ্রগুপ্ত মৌর্যের সময় কোন্ গ্রিকদূত ভারতে আসেন? — মেগাস্থিনিস।

১৯। ওয়াহাবিকথার অর্থ কী? – নবজাগরণ।

২০। স্বরাজ আমার জন্মগত অধিকার-কার উক্তি?—বালগঙ্গাধর তিলক।

২১। দশম ফলস অবস্থিত — কাঞ্চি নদীর উপর।

২২। ত্বকের বর্ণ সৃষ্টিকারী হরমােনের নাম কী? – মেলানােসাইট স্টিমুলেটিং হরমােন (MSH)।

২৩। Salt Cake বলা হয় – NaSO, (সােডিয়াম সালফেট) কে।

 ২৪। কততম সংবিধান সংশােধনী অনুযায়ী সম্পত্তির অধিকারকে মৌলিক অধিকারের তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়? – ৪৪তম।

২৫। উপনিষদের অপর নাম কী? – বেদান্ত।

২৬। চিকাগাে বিশ্ব ধর্ম সম্মেলন হয়েছিল – ১৮৯৩ সালে।

২৭। বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালিত হয় – ১১ জুলাই।

২৮। প্রােটিনের গঠনগত একক হল – অ্যামাইনাে অ্যাসিড।

২৯। টোড়া উপজাতিসমূহের প্রধান বাসস্থান হল – নীলগিরি পর্বত।।

৩০। Viticulture সম্পর্কিত – আঙুর চাষের সঙ্গে।

৩১। স্বাধীন ভারতের শেষ ব্রিটিশ গভর্নর জেনারেল হলেন – লর্ড মাউন্টব্যাটেন।

 ৩২। সুইসাইডাল ব্যাগ কাকে বলা হয়? — লাইসােজোমকে।

৩৩। নর্মাল স্যালাইন হল – সােডিয়াম ক্লোরাইডের জলীয় দ্রবণ।

৩৪। সারে যাঁহাসে আচ্ছাগানটির স্রষ্টা কে ? – মহম্মদ ইকবাল।

৩৫। কোন্ কোশ অঙ্গাণু কোশের শক্তিঘরনামে পরিচিত? —মাইটোকন্ড্রিয়া।

৩৬। ফোটোগ্রাফিক ফিল্মে যে যৌগটি ব্যবহার করা হয় – সিলভার ব্রোমাইড।

৩৭। ভারতের স্বাধীনতা প্রাপ্তির সময় ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী কে ছিলেন? ক্লিমেন্ট অ্যাটলি।

৩৮। ভারতের স্থায়ী গবেষণা কেন্দ্র দক্ষিণ গঙ্গোত্রীকোথায় অবস্থিত?- আন্টার্কটিকা।

 ৩৯। নাগাৰ্জুন সাগর বহুমুখী প্রকল্পের বাঁধ কোন্ নদীর ওপর অবস্থিত?– কৃষ্ণা।

 ৪০। আয়নায় প্ৰলেপ দিতে কোন কার্বোহাইড্রেট বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহৃত হয়? – গ্লুকোজ।







         




Monday, 2 September 2019

The science of farming (চাষ বিষয়ক বিজ্ঞান)







The science of farming (চাষ বিষয়ক বিজ্ঞান) :


🚷পিসিকালচার কি_?
📖মৎস্য চাষ বিজ্ঞান।
-
🚷এপিকালচার কি_?
📖মৌমাছি পালন বিজ্ঞান।
-
🚷এভিকালচার কি_?
📖পাখি পালন বিজ্ঞান।
-
🚷সেরিকালচার কি_?
📖রেশম চাষ বিজ্ঞান।
-
🚷প্রন কালচার কি_?
📖চিংড়ি চাষ বিষয়ক বিজ্ঞান।
-
🚷পার্ল কালচার কি_?
📖মুক্তা চাষ বিষয়ক বিজ্ঞান।
-
🚷ফ্রগ কালচার কি_?
📖ব্যাঙ চাষ বিষয়ক বিজ্ঞান।
-
🚷অ্যানিমাল হাজবেড্রি কি_?
📖গবাদি পশু পালন বিদ্যা।
-
🚷পোলট্রি ফার্মিং কি_?
📖হাঁস-মুরগীর পালন বিদ্যা।
-
🚷হর্টিকালচার কি_?
📖উদ্যান পালন বিদ্যা।
-
🚷পেস্ট কন্ট্রোল কি_?
📖বালাই নিয়ন্ত্রণ।




         



Questions and answers on the human body (মানবদেহ সম্পর্কিত প্রশ্ন-উত্তর সমূহ)




মানবদেহ সম্পর্কিত প্রশ্ন-উত্তর সমূহঃ


❏ বৃহত্তম পেশী ➪গ্লুটিয়াস
❏ সর্ববৃহৎ অন্তঃক্ষরা গ্রন্থি ➪থাইরয়েড
❏ সর্বাপেক্ষা পাতলা ত্বক ➪কনজাংটিভা
❏ সর্ববৃহৎ পৌষ্টিক গ্রন্থি ➪যকৃত
❏ সর্ববৃহৎ লসিকা গ্রন্থি ➪প্লীহা
❏ দীর্ঘতম স্নায়ু ➪সায়াটিকা নার্ভ
❏ দেহের দীর্ঘতম কোষ ➪স্নায়ুকোষ
❏ একটি মিশ্র গ্রন্থি ➪অগ্ন্যাশয়
❏ দেহের কঠিনতম অংশ ➪দাঁতের এনামেল
❏ দেহের ব্যস্ততম অঙ্গ ➪হৃৎপিণ্ড
❏ শরীরে তাৎক্ষণিক শক্তি জোগায় যে অঙ্গ ➪লিভার
❏ দেহের শক্তিশালী পেশী ➪চোয়ালের পেশী
❏ ক্ষুদ্রতম পৌষ্টিক গ্রন্থি ➪অক্সিন্টিক গ্রন্থি
❏ মোট পেশী সংখ্যা ➪৬৩৯
❏ পৌষ্টিক নালীর দৈর্ঘ্য ➪৯ মিটার
❏ বৃক্কীয় নালিকার দৈর্ঘ্য ➪৩৫-৫০ মিমি
❏ বৃহদান্ত্রের দৈর্ঘ্য ➪১.৫ মিটার।
❏ সুষুম্নাকান্ডের দৈর্ঘ্য ➪৪২-৪৫ সেমি।
❏ ক্ষুদ্রান্তের দৈর্ঘ্য ➪৭ মিটার
❏ করোটি স্নায়ুর সংখ্যা ➪১২ জোড়া
❏ মস্তিষ্কের কোষের সংখ্যা ➪১০,০০০ মিলিয়ন
❏ দেহের কোষের সংখ্যা ➪৬০,০০০ মিলিয়ন
❏ জিহ্বার স্বাদ কোরক ➪৯০০০-১০,০০০
❏ লােহিত রক্তকণিকার সংখ্যা ➪৫০,০০০/Cumm (পুরুষ)-৪৫,০০০/Cumm(মহিলা)
❏ BMR (ক্যালরি অনুসারে) ➪১০০০-২০০০ Kcal/দিন- ১০০০-১৭০০Kcal/দিন(মহিলা)
❏ মোট রক্তের পরিমাণ ➪৫.৬ লিটার
❏ রক্ততনের সময়কাল ➪৩.৬ মিনিট
❏ যকৃতের ওজন ➪১.৫ কিগ্রা
❏ অনুচক্রিকারসংখ্যা ➪২৫০,০০০-৫,০০,০০০/Cumm
❏ শ্বেত রকণিকার সংখ্যা ➪৭,০০০-১০,০০০/Cumm
❏ সর্বাপেক্ষা দেহ উষ্ণতা ➪৯৮.৪°F (প্রায় ৩৭° C)
❏ জন্মের সময় স্বাভাবিক শ্বাসগতি ➪৪০-৬০/মিনিট
❏ ৫ বছর বয়সে স্বাভাবিক শ্বাস গতি ➪২৪-২৬/মিনিট
❏ ১ ১৫ বছর বয়সে স্বাভাবিক শ্বাস গতি ➪২০-২২/ মিনিট
❏ প্রাপ্তবয়স্ক স্বাভাবিক শ্বাস গতি ➪১৪-১৮ মিনিট
❏ মস্তিষ্কের ওজন ➪১.৩৬ কিগ্রা
❏ পিটুইটারী গ্রন্থির ওজন ➪১.৫ গ্রাম
❏ হৃৎপিন্ডের ওজন ➪৩৩০ গ্রাম,
❏ বৃক্কের ওজন ➪১২৫-১৭০ গ্রাম
❏ মােট অস্থি সংখ্যা ➪২০৬ টি
❏ করোটি অস্থির সংখ্যা ➪২২টি
❏ প্রতি মিনিটে নির্গতের পরিমাণ ➪২০০ মিলি
❏ সর্বাপেক্ষা হাল্কা অস্থি ➪ন্যাসো-টারবিনালস
❏ যে অঙ্গ কখনাে বিশ্রাম পায় না ➪কিডনি ও হৃৎপিন্ড
❏ ত্বকের সাধারণ স্থূলত্ব ➪১.২ মিমি
❏ যে অঙ্গ ছাড়াও মানুষের কাজ চলে ➪অ্যাপেনডিক্স
❏ দেহের RBC-র সংখ্যা ➪২৫ কোটি
❏ দেহের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ ➪পিটুইটারী গ্ল্যান্ড
❏ হাড়ের সংখ্যা ➪২০৬টি
❏ বৃহত্তম ও শক্তিশালী হাড় ➪ফিমার
❏ ক্ষুদ্রতম হাড় ➪স্টেপিস
❏ ক্ষুদ্রতম কোষ ➪শুক্রানু
❏ বৃহত্তম জিন ➪ডিস্ট্রোফিন





         



Monday, 26 August 2019

Song of Periodic Table (পর্য্যায়সারণীর গান)







"পর্য্যায়সারণীর গান"


প্রথমেই হাইড্রোজেন, পরে হিলিয়াম;
পর্য্যায়সারণীর গান শুরু করিলাম।
লিথিয়াম, বেরিলিয়াম, বোরণ, কার্বণ;
পর পর এসে যায়, বাড়ে ইলেকট্রণ।
কার্বণ মৌল প্রকৃতিতে নানা রূপে রয়;
হীরক আর কোক তার রূপভেদ হয়।
নাইট্রোজেন ও অক্সিজেন মিলিয়া বাতাস;
অক্সিজেন গ্যাসে মোরা নিতে পারি শ্বাস।
তারপরে নবম মৌল, নামটি ফ্লুরিণ;
মঁয়সার হাতে ধরা দিল এক দিন।
দশে এল নতুন গ্যাস, নামটি নিয়ন;
বাতির ভিতরে করে আলো বিকিরণ।
নিষ্ক্রিয় গ্যাস নিয়ন, বিক্রিয়া না করে;
শেষ কক্ষ আছে পুরা ইলেকট্রণে ভরে।
এগারতে সোডিয়াম ক্ষারধাতু হয়,
বার নম্বরে জানি ম্যাগনেসিয়াম রয়।
অ্যালুমিনিয়াম এল, তেরো নম্বর;
চৌদ্দতে সিলিকন থাকে তারপর।
বালির ভিতরে জানি আছে সিলিকণ,
উহা পেতে হলে কর বালি বিজারণ।
তারপরে ফসফরাস ও সালফার রয়;
সালফার করে নানা রোগ নিরাময়।
সতের নম্বরে ক্লোরিণ হল হ্যালোজেন;
লবণেতে আছে জেনো, লভ তার জ্ঞান।
আঠারোতে আর্গন, বাতাসেতে পাই;
নিষ্ক্রিয় গ্যাস উহা, কোনো কাজ নাই।
পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, স্ক্যাণ্ডিয়াম,
টিটানিয়াম, ভ্যানাডিয়াম, এল ক্রোমিয়াম।
পঁচিশে ম্যাঙ্গানিজ আর ছাব্বিশে আয়রন;
তারপরে কোবাল্ট, নিকেল --- জানে সর্ব্বজন।
উনত্রিশ নম্বর ঘরে তাম্র বসে রয়,
তিরিশেতে জিঙ্ক ধাতু আমাদেরই হয়।
গ্যালিয়াম, জার্মেনিয়াম আর আর্সেনিক;
একত্রিশ, বত্রিশ, তেত্রিশে হয় ঠিকঠিক।
সেলেনিয়াম, ব্রোমিন এল তারপর;
ক্রিপ্টন নিষ্ক্রিয় গ্য়াস, ছত্রিশে ঘর।
পরমাণু ক্রমাঙ্কের হয়ে যায় বর্দ্ধন,
পাউলির নীতি মেনে ব'সে ইলেকট্রণ।
বিরানব্বইখানি মৌল প্রকৃতিতে পাই;
উহাদের আঠারো শ্রেণী, সাত পর্য্যায়।
ডান দিকে থাকে যত হ্যালোজেনগণ,
ওরা বানাইতে পারে সামুদ্রিক লবণ।
বাম দিকে মহাতেজা ক্ষারধাতুগুলি,
হ্যালোজেনদের সাথে করে চুলোচুলি।
সাঁইত্রিশে রুবিডিয়াম নামে মৌল রয়;
তারপরে স্ট্রনশিয়াম, ইট্রিয়াম হয়।
জারকোনিয়াম, নায়োবিয়াম, মলিবডেনাম;
নব টেকনিকে আসে টেকনিসিয়াম।
রুথেনিয়াম, রোডিয়াম ও প্যালাডিয়াম;
সাতচল্লিশে রূপা, তাকে বলি আর্জেণ্টাম।
ক্যাডমিয়াম, ইণ্ডিয়াম, টিন এসে যায়;
টিনের প্রলেপ দিলে লোহা টিকে যায়।
এ্যাণ্টিমণি নামে মৌল আসে একান্নয়,
রোমাণেরা স্টিবিয়াম নামে তাকে কয়।
টেলুরিয়াম, আয়োডিন, জেনন, সিজিয়াম;
তারপরে ছাপান্নতে হয় যে বেরিয়াম।
তারপরেতে সারণীতে শাখা এসে যায়;
ল্যান্থানাইড মৌল আসে, আলাদা পর্য্যায়।
সাতান্ন নম্বর থেকে একাত্তর নম্বর,
ল্যান্থানাইড মৌলগুলি বাঁধে নীচে ঘর।
ল্যান্থানামে ল্যান্থানাইড মৌল শুরু হয়;
সেরিয়াম, প্রাসিওডিয়াম, নিওডিয়াম রয়।
প্রোমেথিয়াম, সামারিয়াম, ইউরোপিয়াম,
গ্যাডোলিনিয়াম আসে, আসে টারবিয়াম।
ডায়াসপ্রোসিয়াম, হোলবিয়াম, এরবিয়াম;
থুলিয়াম, ইটারবিয়াম, আসে লুটেসিয়াম।
ল্যান্থানাইড মৌলগুলি এইভাবে শেষ হয়;
ফিরে আসি মূলপথেতে, মেণ্ডেলিফের জয়!
মূলপথেতে বাহাত্তরে আছে হাফনিয়াম;
তিয়াত্তরে কষ্টেসৃষ্টে পাও গো ট্যাণ্টালাম।
উলফ্রাম বা টাংস্টেন চুয়াত্তরে রয়;
তাই দিয়ে বাল্বের ফিলামেণ্ট হয়।
রেণিয়াম, অসমিয়াম, ইরিডিয়াম এল;
তারপরে আটাত্তরে প্লাটিনাম হল।
প্লাটিনাম সে বরধাতু, বহু টাকা দাম;
তারপরে এল সোনা, পারা, থ্যালিয়াম।
বিরাশি নম্বরে সীসা নামে ধাতু রয়,
তেজষ্ক্রিয় মৌলগুলি ক্ষয়ে সীসা হয়।
বিসমাথ, পোলোনিয়াম আর অ্যাস্টাটিন;
শেষেরখানি পঁচাশিতে, টিকে অল্প দিন।
তারপরে রেডন এল ছিয়াশি নম্বরে,
নিষ্ক্রিয় সে তবু তেজষ্ক্রিয় রশ্মি ধরে।
ফ্রান্সিয়াম সে ফ্রান্স দেশে আবিষ্কৃত হয়;
রেডিয়ামে রশ্মি আছে, পেলে পরিচয়।
অ্যাক্টিনিয়াম, থোরিয়াম অ্যাক্টিনাইড ওই;
প্রোটাক্টিনিয়াম আসিল, সে একানব্বই।
বিরানব্বইয়ে ইউরেনিয়াম সুবিখ্যাত হয়;
প্রাকৃতিক মৌলদিগের শেষে ইহা রয়।





         



Monday, 19 August 2019

General Science






General Science :


১। মিসিসিপি নদী কোন দেশের উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে?- মার্কিন
যুক্তরাষ্ট্র।
২। উত্তর আমেরিকার দীর্ঘতম (একক) নদী কোনটি ?- ম্যাকেঞ্জি
(৪২৪১ কি.মি.)।
৩। দক্ষিণ আমেরিকার দীর্ঘতম নদী কোনটি ?- আমাজন (৬৪৩৭
কি.মি.)।
৪। পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম নদী কোনটি ? - আমাজন।
৫। পৃথিবীর প্রশস্ততম নদী কোনটি ?- আমাজন।
৬। আমাজান নদী কোথায় পতিত হয়েছে ?- আটলান্টিক মহাসাগরে।
৭৷ কোন নদী দিয়ে সবচেয়ে বেশি জল প্রবাহিত হয় ?- আমাজন।
৮। আমাজান নদী দিয়ে প্রতি সেকেন্ডে কত ঘন ফুট জল প্রবাহিত হয়ঃ
- ৭২ লক্ষ ঘনফুট।
৯। ওশেনিয়ার দীর্ঘতম নদী কোনটি ?- মারে ডালিং, অষ্ট্রেলিয়া
(৩৭৮০ কি.মি.)।
১০। মারে ডালিং নদী কোন নদী সাগরে পতিত হয়েছে ?- ভারত
মহাসাগরে।
১১। পশ্চিমবঙ্গের কোথায় কুমীর প্রকল্পরয়েছে - দক্ষিণ ২৪ পরগনার
ভগৎপুরে।।
১২। পশ্চিমবঙ্গের কোথায় একশৃঙ্গ গণ্ডার সংরক্ষণ করা হয় -
জলদাপাড়ায়।

Indian Environmental Law (ভারতীয় পরিবেশ আইন)

ভারতীয় পরিবেশ আইনঃ



ভারতীয় বনভূমি রক্ষা আইন - 1980

ভারতীয় জীব বৈচিত্র সুরক্ষা আইন - 2002

ভারতীয় জলদূষন নিয়ন্ত্রণ আইন - 1974

ভারতীয় বায়ু দূষণ নিয়ন্ত্রণ আইন - 1981

ভারতীয় পরিবেশ রক্ষা আইন - 1986

ভারতীয় হস্তি ও গন্ডার সংরক্ষণ আইন - 1932


ভারতীয় বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইন - 1972 (সংশােধন –2003)

ভারতীয় বনভূমি আইন - 1927

National Green Tribunal Act - 2010

Protection of Plant Varieties and Farmers Right Act - 2001

Public Liability Insurance Act - 1991

ভারতীয় তফসিলী আদিবাসী ও অন্যান্য ঐতিহ্যশালী অরণ্য বাসী আইন (Recognition of Forest Right) - 2006

ভারতীয় আন্তর্দেশীয় মৎস্য সংরক্ষণ আইন - 1993

ভারতীয় শহর ও দেশ পরিকল্পনা আইন - 1979

ভারতীয় জলাভূমি সংরক্ষণ আইন - 1971


Hazard and Waste Handling and Management Act - 1981

All India Elephant Preservation Act - 1879

পশ্চিমবঙ্গ অরণ্য আইন - 1982

পশ্চিমবঙ্গ বৃক্ষ আইন - 2006

পশ্চিমবঙ্গ বন্য প্রাণী সংরক্ষণ আইন - 1959

ভারতীয় গন্ডার সংস্করণ আইন - 1992



         




Sunday, 11 August 2019

Some important questions and answers to general knowledge (সাধারন জ্ঞানের কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর)




Gk, exam, knowledge, English, important, competitive, job
সাধারন জ্ঞানের কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর



সাধারন জ্ঞানের কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর :


1.শব্দের গতিবেগ বেশি হয় কঠিন মাধ্যমে ।
2. হোয়াইট ভিট্রিয়ল নামে পরিচিত জিংক সালফেট ।
3. কুইক লাইম বলা হয় ক্যালসিয়াম অক্সাইড কে ।
4. “Rare Earth” পারমাণবিক সংখ্যা বিশিষ্ট ধাতব মৌলের 55 - 57 শ্রেণীকে বলা হয় ।
5. হিমঘরে ব্যবহৃত গ্যাসটির নাম অ্যামোনিয়া ।
6. দার্শনিকের উল বলা হয় জিংক অক্সাইড কে ।
7. বেগুনি রঙের আলোর তরঙ্গদৈর্ঘ্য সবচেয়ে কম ।
8. পটাশিয়াম সালফেট লবণটি ফটকিরিতে আছে।
9. ডিস এরিয়াল এক ধরনের অর্ধবৃত্তাকার প্রতিফলক।
10. পেরিস্কোপ এর প্রতিফলক অবতল দর্পণ ।
11. ভিনিগারে অ্যাসিটিক অ্যাসিড থাকে ।.12. অ্যালফ্রেড নোবেল একজন রসায়নবিদ ।
13. টেবিল সল্ট বলতে সোডিয়াম ক্লোরাইড কে বোঝায় ।
14. ইউরিয়ার সংকেত CO(NH2) 2
15. কোন ধাতুকে গরম করলে ঘনত্ব কমে ।
16. তড়িৎ প্রবাহের ফলে অত্যন্ত তাপ সৃষ্টি হলেও বৈদ্যুতিক বাল্বের ফিলামেন্ট গলে না বা পুড়ে যায় না কারণ বাল্বের ভিতরে অক্সিজেন থাকে না ।
17. জোনাকি পোকায় লুসিফেরিন থাকার জন্য আলো জ্বলে।
18. অ্যাভোগাড্রো সূত্র বায়বীয় পদার্থের উপর প্রযোজ্য ।
19. নীলস বোর হলেন একজন পদার্থবিদ ।
20. শাক সবজি সবুজ রাখতে ব্যবহার করা হয় কপার সালফেট ।
21. ম্যালেরিয়া রোগের জন্য দায়ী মশা হল অ্যানোফিলিস ।
22. দূরের জিনিস দেখতে কোন লেন্স ব্যবহার করা হয় ।
23. নাইট্রাস অক্সাইড হলো লাফিং গ্যাস ।
24. বায়ুর চেয়ে হালকা গ্যাস হাইড্রোজেন ।
25. বলয় পরীক্ষার সঙ্গে যুক্ত অ্যাসিড হল নাইট্রিক অ্যাসিড ।
26. এরোপ্লেন এর চাকায় নাইট্রোজেন গ্যাস ভরা থাকে ।
27. অয়েল অব ভিট্রিয়ল বলা হয় সালফিউরিক অ্যাসিড কে ।
28. কলিচুন এর সংকেত Ca(OH) 2।
29. ক্যালসিয়াম অক্সাইড পোড়া চুন নামে পরিচিত ।
30. কুইনাইন , নিকোটিন প্রকৃতি হল উপক্ষার ।
31. সোডিয়াম হাইড্রোজেন শোষক নয় ।
32. চিলি রাজধানীর নাম সান্তিয়াগো।
33. মহানগরে লোক সংখ্যা হবে 10 লক্ষাধিক ।
34. 'লেটস মেক থিংস বেটার' স্লোগানটি ফিলিপস এর।
35. 'ইতালির ডেট্রয়েট' নামে খ্যাত তুরিন ।
36. 38 নম্বর প্যারালাল আছে উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে ।
37. ভারতের যে রাষ্ট্রপতি সর্বাধিককাল পদ অলংকৃত করেছেন তিনি হলেন সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণান।
38. চতুর্থ ইঙ্গ-মহীশূর যুদ্ধে টিপু সুলতানের মৃত্যু হয় ।
39. অভ্যন্তরীণ পূর্ণ প্রতিফলন এর জন্য মরীচিকার উৎপত্তি হয় ।
40. জাইলেম কলার মাধ্যমে জল মাটি থেকে পাতায় পৌঁছায়।
41. ফ্রান্স সরকার পণ্ডিত রবিশঙ্করকে 'কম্যান্ডার অব দি লিজিয়ন অব অনারে' ভূষিত করেন ।
42. 'Man and Superman' বইটির লেখক জর্জ বার্নার্ড শ।
43. তীজ উৎসবটি রাজস্থানের ।
44. ক্রিপস মিশন লিনলিথগো এর সময়ে হয়েছিল ।
45. ভারতের একমাত্র 'Wild Ass Sanctuary' আছে গুজরাটে ।
46. 'i can' নামক আন্তর্জাতিক সংস্থাটি শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পেল ।
47. এবারে অনূর্ধ্ব 17 বিশ্বকাপ ফুটবল জিতল ইংল্যান্ড ।
49. দুর্নীতির অভিযোগে সম্প্রতি সাড়ে 9 বছরের কারাদণ্ড হয়েছে লুইজ ইনাসিও লুলা দ্য সিলভার-এর। ইনি ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট ছিলেন ।
50. পশ্চিম বর্ধমান জেলাটি 23 তম জেলার স্বীকৃতি পেল ।
51. “ট্রিপল অ্যান্টিজেন” হল ডিফথেরিয়া, টিটেনাস ও হুপিং কাশির জন্য ।
52. 'DOT' চিকিৎসার টিউবারকিউলোসিস রোগ এর সঙ্গে যুক্ত ।
53. ভিটামিন এর আকৃতি সম্পন্ন কিন্তু গুণসম্পন্ন নয় তাদের বলা হয় সিউডো ভিটামিন ।
54. সবচেয়ে বেশি ভিটামিন -এ পাওয়া যায় গাজরে।
55.' আয়োডিন' আবিষ্কার করেন বার্নার্ড করটয়স।
56. দুধের মধ্যে যে অল্প পরিমাণ শর্করা থাকে তাকে বলা হয় ল্যাকটোজ ।
57. কালমেঘ গাছের বিজ্ঞানসম্মত নাম হল অ্যান্ড্রোগ্রাফিক্স প্যানিকুলাটা।
58. কেন্দ্রীয় সরকারের 'লক্ষ্য স্কিম' এর উদ্দেশ্য হল মাতৃত্বকালীন স্বাস্থ্যের উন্নতি ।
59.ডিসপোজাল হাইপোডারমিক সিরিঞ্জ আবিষ্কারক কলিন  অলবার্ট মার্ডাক নিউজিল্যান্ডের নাগরিক ছিলেন।
60. পোকামাকড় দেখে ভয় পাওয়াকে বলে এন্টোমোফোবিয়া।
61. 'অটোস্কোপ' যন্ত্রটি ব্যবহার করা হয় কানের পর্দার পরীক্ষায়।
62. পাকা ফলে প্রচুর পরিমাণে ফ্রুকটোজ থাকে।
63. চোখের রড কোষ গঠনে ভিটামিন -A এর প্রয়োজন ।
64. 'উইডাল টেস্ট' টাইফয়েড রোগ নির্ণয় করার জন্য করা হয় ।
65. যেসব যৌগ থেকে ভিটামিন সংশ্লেষিত হয় তাদের প্রোভিটামিন বলে ।
66. ফলিক অ্যাসিডের প্রধান উৎস হলো পালং শাক ।
67. আলফা ক্যারোটিন প্রোটিন এর উপস্থিতি দেখা যায় ত্বকের।
68. জন্মের পর শিশুর ওরাল পোলিও ভ্যাকসিনের ডোজকে বলা হয় জিরো ডোজ  ।
69. ভিটামিন - E কে আলফা টোকোফেরল বলা হয় ।
70. পশ্চিমবঙ্গের দরিদ্র মেয়েদের বিবাহের জন্য আর্থিক সাহায্য দানের প্রকল্পটির নাম হল রুপশ্রী ।
71. পোলিও ভ্যাকসিনের  ভাওয়ালের মাঝে বর্গক্ষেত্রে সাদা রংটি ভ্যাকসিনটি সঠিক ভাবে সংরক্ষিত কিনা বুঝতে সাহায্য করে ।
72. 'বাটারফ্লাই' কথাটি সাঁতার খেলার সঙ্গে সম্পর্কিত।
73. 'সতীশ' ও 'সাবিত্রী' শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের চরিত্রহীন উপন্যাসের চরিত্র ।
74. 'অ্যান্টিভেনিন' ওষুধ টি ব্যবহৃত হয় সাপ কামড়ালে।
75. গঙ্গাসাগর মেলা জানুয়ারি মাসে অনুষ্ঠিত হয় ।
76. 'স্বাধীনতা হীনতায় কে বাঁচিতে চায় হে' এই বিখ্যাত উক্তিটি রঙ্গলাল গঙ্গোপাধ্যায়ের ।
77. ভিটামিন - K চর্বি জাতীয় পদার্থে দ্রবণীয়।
78. প্রকৃতিগতভাবে ভারতের সংবিধান হল অংশত নমনীয়, অংশত অনমনীয়।
79. রুবেলা একটি ভাইরাল অসুখ।
80.পুনম যাদব ভারোত্তোলন খেলার সঙ্গে যুক্ত।


English Version : Click Here 



         










Tuesday, 23 July 2019

চন্দ্রায়ন-2 মিশন সম্পর্কিত



Chandryaan2 ,Lander ,Vikram ,চন্দ্রযান ২ ,ISRO ,Moon ,Important ,exam ,knowledge ,wbcs ,ssc ,Rail ,gk ,bank


#Chandryaan2 #Lander #Vikram #চন্দ্রযান ২ #ISRO #Moon #Important #exam #knowledge #wbcs #ssc #Rail #gk #bank

চন্দ্রায়ন-2 মিশন সম্পর্কিত :


1) চন্দ্রায়ন-2 মিশন টি লঞ্চ করা হলো কোন সেন্টার থেকে?

উত্তরঃ সতীশ ধাওয়ান স্পেস সেন্টার , শ্রীহরিকোটা

2) চন্দ্রায়ন 2 মিশন কত তারিখে লঞ্চ করা হলো ?

উত্তরঃ 22 জুলাই , 2019 (2:43pm)

3) চন্দ্রায়ন 2 কবে চাঁদের মাটি স্পর্শ করবে?

উত্তরঃ 7 সেপ্টম্বর 2019

4) চন্দ্রায়ন-2 চাঁদের কোথায় ল্যান্ড করবে?

উত্তরঃ দক্ষিণ

5) চাঁদে রোভার ল্যান্ড করানোই ভারত কত তম দেশ হবে?

উত্তরঃ চতুর্থ

6) চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে ল্যান্ড করানোতে ভারত কত তম দেশ হবে?

   উত্তরঃ প্রথম

7) রোভারের নাম কি রাখা হয়েছে?

  উত্তরঃ প্রজ্ঞান

8) মিশন ডিরেক্টর কে?

  উত্তরঃ Ritu Karidhal

Chandryaan2


9) প্রজেক্ট ডিরেক্টর কে?

   উত্তরঃ Muthayya Vanitha

10) লান্ডারের নাম কি?

    উত্তরঃ বিক্রম

11) চন্দ্রায়ন-2 এর ওজন কত?

  উত্তরঃ 3850 কেজি

12) চন্দ্রায়ন-2 এর খরচ কত?

 উত্তরঃ 978 কোটি টাকা

13) চন্দ্রায়ন-2 মিশন লঞ্চ করল কোন সংস্থা?

 উত্তরঃ ইসরো

14) ISRO পুরো নাম কি?

উত্তরঃ Indian Space Research Organisation

15) ISRO বর্তমান চেয়ারম্যান কে?

উত্তরঃ K. সিবান

16) ISRO কবে স্থাপিত হয়?

উত্তরঃ 1969 সালের 15ই আগস্ট

17) চন্দ্রায়ন-2 লঞ্চ করা হলো কোন ভেহিকেল?

উত্তরঃ GSLV Mk III

18) সতীশ ধাওয়ান স্পেস সেন্টার কোথায় অবস্থিত?

উত্তরঃ শ্রীহরিকোটা, AP

19) GSLV পুরো নাম কি?

উত্তরঃ Geosynchronous Satellite Launch Vehicle

20) পৃথিবী থেকে চাঁদের দূরত্ব কত?

উত্তরঃ 3.84 লাখ

21) লান্ডারের নাম দেওয়া হয়েছে কার নামানুসারে?

উত্তরঃ Indian space programme এর জনক বিক্রম সারাভায় এর নামানুসারে

22) ল্যান্ডার টিকে কোথায় নামানো হবে?

উত্তরঃ দুইটি গর্তর ম্যানজিনস সি এবং সিম্পিলিয়াস এন-এর মাঝখানে

23) রোভারটি কয় চাকা বিশিষ্ট?

উত্তরঃ ছয় চাকা বিশিষ্ট

24) ল্যান্ডারের ওজন কত?

উত্তরঃ 1471 কেজি

25) রোভারের ওজন কত?

উত্তরঃ 27 কেজি

26) চন্দ্রায়ন-1 মিশন কত সালে হয়েছিল?

উত্তরঃ 2008 সালে

Friday, 19 July 2019

বিজ্ঞান এর কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর




বিজ্ঞান এর কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর


বিজ্ঞান এর কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর :
• জলের তলায় বুদ্বুদকে চকচকে দেখার কারণ, অভ্যন্তরীণ পূর্ণপ্রতিফলন।
• বৃত্তাকার পথে চলন্ত গাড়িতে আরােহীর যে অভিজ্ঞতা হয় কেন্দ্রাতিক বল।
• সাধারণ রেডিওর চেয়ে এফ এম রেডিও জনপ্রিয় হওয়ার কারণ এর মাধ্যমে শব্দের যে ব্যতিচার ঘটে তা না হওয়ায় শব্দ ভালাে শােনা যায়।
• কোনও বস্তু ভাসমান অবস্থায় জলকে গরম করলে বস্তুটি আগের থেকে একটু বেশি ডুবে যাবে।
• আলাের গতি কিছুটা কমবে যে মাধ্যমে কাচ।
• একটা লাল বস্তুকে নীল কাচের মাধ্যমে দেখাবে-- কালাে রঙের।
• বরফ জমা পুকুরের নীচে বরফের সংস্পর্শে থাকা জলের উষ্ণতা হবে- (09 সেলসিয়াস।
• জলের মধ্যে বুদ্বুদ অবতল লেন্সের মতাে ক্রিয়া করে।
• দু’টি বস্তু জলে ডােবালে যদি তারা একইরকম হালকা বােধ হয় তবে তাদের একই আয়তন হবে।
• কোন দ্রবণে অন্য কোনও অদ্রাব্য পদার্থ যােগ করলে দ্রবণের স্ফুটনাঙ্ক বৃদ্ধি পাবে।
• যে ধাতু স্টিলের মতােই শক্ত কিন্তু ওজনে অর্ধেকটাইটেনিয়াম।
• দুধের থেকে তার কঠিন পদার্থগুলিকে আলাদা করলে দুধের ঘনত্ব বেড়ে যায়।
• 0°C, 4°C, 100° C উষ্ণতায় জলের ক্রমহ্রাসমান ঘনত্ব হবে- 4°C, 0° C ও 100 C।
• চলন্ত ট্রেনে একটি বলকে ওপরে ছুড়ে দিলে বলটি তার হাতে এসে পড়বে (গতিজাড্য)।
• ক্যাপিলারি অ্যাকশন ঘটে— কেরােসিন ল্যাম্পে, কাগজ আর উদ্ভিদের শিকড় থেকে জল পাতায় পৌঁছাতে।।
•ম্প্রিং তুলাযন্ত্রে দণ্ডায়মান কোনও ব্যক্তি লিফটে করে ওঠার সময় তার ওজন বেড়ে যাবে।
• টেনে নিয়ে যাওয়া থেকে গড়িয়ে নিয়ে গেলে ঘর্ষণ বাধা কম হয়।
যেগুলির ক্ষেত্রে প্রবাহের নির্দিষ্ট কোন অভিমুখে থাকবে-রাসায়নিক প্রবাহ, চুম্বক প্রবাহ।
এই তলগুলির শক্তির ক্ষয় করার ক্ষমতা ক্রমহ্রাসমান-কালাে রং করা তল, মসৃণ তল, সাদা রঙের তল।।
লবণজলে তড়িৎ বহন করে সােডিয়াম ক্লোরাইডের আয়নগুলি।




• একটি সুর ও সাধারণ স্বরের মধ্যে পার্থক্য নির্দিষ্ট কম্পাঙ্ক (Pitch)।
• ক্রমহ্রাসমান আলাের গতিবেগ হবে-হীরে, কাচ, জল।
•একটি চৌম্বকদণ্ড ভাঙলে দুটি চৌম্বকদণ্ড হবে।।
মরীচিকা তৈরি হওয়ার কারণ খুব উচ্চ তাপমাত্রায় বাতাসের মধ্য দিয়ে আলাে আসার সময় তার প্রতিসরণ।।
•একটি নির্দিষ্ট সুর সেতার ও বাঁশিতে হলে তার পার্থক্য বােঝার কারণ তরঙ্গ ও লাউডনেস।।
• আকাশের রং নীল দেখাবার কারণ—নীল রঙের তরঙ্গদৈর্ঘ্য কম হওয়ার কারণে। বাতাসের ধূলিকণা দ্বারা এই আলাে বেশি বিচ্ছুরিত হয়।
পরিষ্কার রাতের আকাশ মেঘলা রাতের চেয়ে ঠান্ডা হয়, কারণ তাপ বিকিরণে ॥ সুগম হয়।
• বায়ােলজির যে সমস্ত বিষয়ের পরীক্ষা ও কাজ Physics-এর সাহায্যে করা হয়। তাকে Bio-Physics বলে।
• রান্না করার সময় যে পােশাক তুলনামূলক নিরাপদ সুতির পােশাক।
• পাহাড়ের চূড়ায় ক্লান্তি অনুভূত হওয়ার কারণ— শরীরের বাইরের চাপ কম থাকে এবং O°কম থাকে।
• ভিজে চুল আঁচড়ালে পরস্পরের আকর্ষণের কারণ অ্যাডিশন।।
• অভ্র বৈদ্যুতিক আয়রনে ব্যবহার হওয়ার কারণ তাপের সুপরিবাহী কিন্তু বিদ্যুতের কুপরিবাহী।

Thursday, 18 July 2019

জেনে রাখা ভালো

জেনে রাখা ভালো


জেনে রাখা ভালো :


প্রশ্নঃ পৃথিবীর বৃহত্তম প্রাণীটির নাম কি?
উঃ নীল তিমি।
প্রশ্নঃ একটি পূর্ণবয়স্ক নীলতিমির দৈর্ঘ্য কত?
উঃ প্রায় ৩০ মিটার।
প্রশ্নঃ কোন প্রাণী কখনোই পুরোপুরি ঘুমায় না?
উঃ তিমি।
প্রশ্নঃ নীল তিমির খাদ্য কি?
উঃ নীল তিমি দিনে প্রায় ৩-৪ হাজার কেজি ক্রিল খায়।
প্রশ্নঃ কোন সাপ সরাসরি বাচ্চা প্রসব করে?
উঃ চন্দ্রবোড়া, মেটুলি প্রভৃতি।
প্রশ্নঃ কোন পাখনা মাছের দিক পরিবর্তনে সাহায্য করে?
উঃ পুচ্ছ পাখনা।
প্রশ্নঃ কোন পাখনা মাছকে সামনের দিকে এগিয়ে দিতে সাহায্য করে?
উঃ বক্ষ পাখনা।
প্রশ্নঃ মাছের শ্বাস অঙ্গের নাম কী?
উঃ ফুলকা।
প্রশ্নঃ কোন মশা ওড়ার সময় আওয়াজ করে?
উঃ অ্যানোফিলিশ মশা।
প্রশ্নঃ এডিস মশা কখন কামড়ায়?
উঃ দিনের বেলা।
প্রশ্নঃ কিউলেক্স মশা কখন কামড়ায়?
উঃ গভীর রাত্রে।
প্রশ্নঃ ম্যালেরিয়া রোগ সৃষ্টিকারী মশাটির নাম কী?
উঃ অ্যানোফিলিশ।
প্রশ্নঃ ফাইলেরিয়া রোগ সৃষ্টিকারী মশাটির নাম কী?
উঃ কিউলেক্স।
প্রশ্নঃ ডেঙ্গি রোগ সৃষ্টিকারী মশাটির নাম কী?
উঃ এডিস ।
প্রশ্নঃ পশ্চিমবঙ্গের একটি ব্যাঘ্র প্রকল্পের নাম লেখো।
উঃ সুন্দরবন।
প্রশ্নঃ এই মুহূর্তে পৃথিবীর শক্তির বড়ো উৎস কী?
উঃ তেল ।
প্রশ্নঃ ভারতে সর্বাধিক কয়লা ব্যবহৃত কোথায়?
উঃ তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে।
প্রশ্নঃ শব্দ দূষণ পরিমাপক একক কী?
উঃ ডেসিবেল ।
প্রশ্নঃ যানবাহনের ধোঁয়া সৃষ্ট ক্ষতিকারক ধাতুজাতীয় দূষক পদার্থ হল
উঃ সিসা ।
প্রশ্নঃ CFCএর পুরো নাম কী?
উঃ ক্লোরো ফ্লুরো কার্বন
প্রশ্নঃ মিনেমাটা রোগ সৃষ্টিকারী ধাতুটির নাম কী?
উঃ পারদ ।
প্রশ্নঃ কোন তেজস্ক্রিয় রশ্মির দ্বারা ত্বকে ক্যান্সার হয়?
উঃ UV বিকিরণের দ্বারা ত্বকের ক্যান্সার হয় ।
প্রশ্নঃ কত তারিখে বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালিত হয়?
উঃ 5ই জুন ।
প্রশ্নঃ জৈব বিয়োজনক্ষম দূষণ সৃষ্টিকারী পদার্থটির নাম কী?
উঃ প্লাস্টিক ।
প্রশ্নঃ তাজমহলের ক্ষতিকারক দূষণ পদার্থটির নাম কী?
উঃ সালফার ডাই অক্সাইড ।
প্রশ্নঃ ভারতে সৃষ্ট মিথেনের মূল উৎস কী?
উঃ ধান খেত ।
প্রশ্নঃ SO2 দূষন দ্বারা গাছের কি ক্ষতি সম্পন্ন হয়?
উঃ ক্লোরোফিল বিনষ্ট হয় ।
প্রশ্নঃ বায়ুমন্ডলের কোন স্তরে ওজোনস্তর দেখা যায়?
উঃ স্ট্র্যাটোস্ফিয়ারে ।
প্রশ্নঃ ওজোনস্তরের ক্ষয়ের জন্য দোষী প্রধান গ্যাসের নাম কী?
উঃ CFC ।
প্রশ্নঃ প্রধান গ্রিন হাউস গ্যাসের নাম কী?
উঃ CO2 ।

Wednesday, 10 July 2019

গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর

গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর


#সাধারণ_বিজ্ঞান#Important #exam #knowledge #wbcs #ssc #Rail #gk

গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর :

১. মস্তিষ্কের স্থিতিস্থাপকতাকে বলে –
প্লাস্টিসিটি।

২. জিহ্বার অগ্রভাগ কোন ধরণের স্বাদ গ্রহণ
করে- মিষ্টি।

৩. চোখের কত অংশ বাইরে উন্মচিত – ৬
ভাগের ১ অংশ।

৪. জিহ্বার পার্শ্বদেশ কোন ধরণের স্বাদ
গ্রহণ করে- টক।

৫. চোখের রেটিয়ানায় কোন ধরণের
প্রতিবিম্ব সৃষ্টি হয় – উল্টো।

৬. কোনো বস্তুকে একই সাথে দুই চোখের
সাহায্যে এককভাবে দেখাকে বলে
– দ্বি-নেত্র দৃষ্টি/বাইনোকুলার ভিশন।

৭. চক্ষু দৃষ্টি সঞ্চার করে – আলকের মাধ্যমে।

৮. মানুষের মুখগহ্বরে লালাগ্রন্থি – ৩ জোড়া।

৯. দাড়িগোঁফ গজায় যে হরমোনের কারনে –
টেস্টোস্টেরন হরমোন।

১০. শিতকালে চামড়া ফাটার কারন- বাতাসের
আপেক্ষিক আদ্রতা কম থাকে বলে।

১১. জীবনরক্ষাকারী হরমোন –
অ্যালডোস্টেরন।

১২. শ্বাশ-প্রশ্বাস কতক্ষন বন্ধ থাকলে মানুষের
মৃত্যু হয়- ৩.৫ মিনিট।

১৩. রক্ত সঞ্চালন কতক্ষণ বন্ধ থাকলে মানুষের
মৃত্যু হয় – ৫ মিনিট।

১৪. দেহকোষে কোন ধরণের কোষ বিভাজন
দেখা দেয় – মাইটোসিস।

১৫. স্মৃতি সংরক্ষণ করে মস্তিষ্কের যে অংশ –
হিপেক্যাম্পাস।

১৬. মানব্দেহে মোট কোষের সংখ্যা – ১০।

১৭. ব্ল্যাড ক্যান্সার হয় – রক্তে শ্বেত কণিকা
বেড়ে গেলে।

১৮. ইনসুলিনের কাজ হল – রক্তে গ্লুকোজের
মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করা।

১৯. রক্তে লোহিত ও শ্বেত কনিকার অনুপাত –
৫০০:১।

২০. মানব দেহের সবচেয়ে দৃঢ় ও দীর্ঘ অস্থি –
উরু অস্থি।

২১. শিরা কণ ধরপের রক্ত বহন করে - CO2.

২২. পনির – আমিষ জাতীয় খাদ্য ।

২৩. শিশুদের রিকেটস হয় – ভিটামিন D এর
অভাবে।

২৪. ভিটামিন K কিসে দ্রাব্য? – চর্বিদ্রাব্যে।

২৫. মানুষের দৈহিক ওজনে পানির পরিমাণ-
৫৫-৬৫%।

২৬. মানুষ প্রইয়োজনীয় পানির যে অংশ
সরাসরি গ্রহণ করে- দুই তৃতীয়াংশ।

২৭. প্রতিদিন মানব্দেহে থকে পানি নিঃসৃত
হয়- ২.৬ লিটার।

২৮. কোন খাদ্যে সব ধরণের খাদ্য উপাদান
বিদ্যমান – দুধে।

২৯. রক্তের PH – ৭.২-৭.৪.

৩০. হিমোগ্লোবিন বিহীন রক্ত কোষ – শ্বেত
কণিকা।

৩১. মানব্দেহের ছাঁকন যন্ত্র – বৃক্ক/কিডনি।

৩২. মানুষের মুতের PH – ৪.৭– ৮।

৩৩. রক্ত শূন্য হলে চুপসে যায় – শিরা।

৩৪. মানুষের দেহে কিডনি আছে – ২টি।

৩৫. শ্বসন্তন্ত্রের প্রধান অঙ্গ – ফুসফুস।

৩৬. মানব দেহে পানির পরিমাণ -৬০-৭০%।

৩৭. মানুষের লালারসে যে এনজাইম থাকে-
আমাইলেজ।

৩৮.মেরুরজ্জুর স্নায়ু সংখ্যা – ৩১ জোড়া।

৩৯. মানুষের মস্তিষ্ক ভাগ করা হয় – ৩ ভাগে।
(প্রোজেন্সেফালন/মেজেনসেফালন/
রম্বেনসেফালন)।

৪০. স্মৃতি,ব্যক্তিত্ব,ধীশক্তি ইত্যাদি গুনাবলীর
কেন্দ্রস্থল হল – সেরিব্রাল কটেক্স।

৪১. শীত, গ্রীষ্ম, লজ্জা, ক্রোধ ইত্যাদি অনুভূতি
বঢ থাকে – থ্যালামাসে।

৪২. হৃৎপিণ্ডের সাথে আবেগ স্পন্দিত করে
মস্তিষ্কের যে অংশ – এমিগডলো।

৪৩. হরমোন, রক্তচাপ, ও শড়িরের তাপ নিয়ন্ত্রণ
করে মস্তিষ্কের যে অংশ – হাইপ্তহ্যালামাস।

৪৪. একটি পরিণত শুক্রাণুর কয়টি অংশ – ৩ টি।

৪৫. পরিপাক শুক্রাণু ও ডিম্বানু নিউক্লিয়াসের
একীভবন হল – নিষেক।

৪৬. শিসুর জন্মকালীন ওজন – ৩.১৭-৩.৬২ কেজি ।

৪৭. মানব দেহের মস্তিষ্কের সক্রিয় অংশ –
১০%।

৪৮. স্মৃতি কয় ধরণের – ৩ ধরণের। (ক্ষনিক/
স্বল্পস্থায়ী/দীর্ঘস্থায়ী)

৪৯. মানব্দেহে PH এর মাত্রা বজায় রাখার
সিস্টেম হল – বাপার সিস্টেম।

৫০. মানুষের শরীরে রাসায়নিক দূত হিসেবে
কাজ করে – হরমোন।

Thursday, 27 June 2019

বিভিন্ন দেশের আইনসভা বা সংসদের নাম (Name of the Legislature or Parliament of different countries)


বিভিন্ন দেশের আইনসভা বা সংসদের নাম


বিভিন্ন দেশের আইনসভা বা সংসদের নাম :


১. বাংলাদেশের আইন সভার নাম- জাতীয় সংসদ।
২. ভারতের আইন সভার নাম – লোকসভা * রাজ্যসভা।
৩. পাকিস্তানের আইন সভার নাম – জাতীয় পরিষদ বা সিনেট।
৪. জাপানের আইন সভার নাম – ডায়েট।
৫. নেপালের আইন সভার নাম – কংগ্রেস বা পঞ্চায়েত।
৬. আফগানিস্তানের আইন সভার নাম – লয়াজিরগা।
৭. ভুটানের আইন সভার নাম – সোংডু।
৮. মালদ্বীপের আইন সভার নাম – মজলিস।
৯. ইরানের আইন সভার নাম – মজলিস।
১০. যুক্তরাষ্ট্রের আইন সভার নাম – কংগ্রেস।
১১. যুক্তরাজ্যের আইন সভার নাম – পার্লামেন্ট।
১২. চীনের আইন সভার নাম – কংগ্রেস।
১৩. ডেনমার্কের আইন সভার নাম – ফোকেট।
১৪. জার্মানির আইন সভার নাম – রাইখস্ট্যাগ।
১৫. কানাডার আইন সভার নাম – পার্লামেন্ট।
১৬.অস্ট্রেলিয়ার আইন সভার নাম – পার্লামেন্ট।
১৭. মালয়েশিয়ার আইন সভার নাম – মজলিস।
১৮. মঙ্গোলিয়ার আইন সভার নাম – থুরাল।
১৯. ইসরাইলের আইন সভার নাম – নেসেট।
২০. তাই্ওয়ানের আইন সভার নাম – উয়ান।
২১. রাশিয়ার আইন সভার নাম – সুপ্রিম সোভিয়েত অ্যাসেম্বলি।
২২. স্পেনের আইন সভার নাম – ক্রেটস।
২৩. তুরস্কের আইন সভার নাম – গ্রান্ড ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি।
২৪. সুইডেনের আইন সভার নাম – রিক্সড্যাগ।
২৫. ফ্রান্সের আইন সভার নাম – চেম্বার।
২৬. নেদারল্যান্ডের আইন সভার নাম – স্ট্যাটেড জেনারেল।
২৭. পোলেন্ডের আইন সভার নাম – সীম।
২৮. নরওয়ের আইন সভার নাম – স্টরটিং।
২৯. ইতালির আইন সভার নাম – সিনেট।
৩০. মিশরের আইন সভার নাম – দারুল আওয়াম।
৩১. আয়ারল্যান্ডের আইন সভার নাম – ডেল আয়ারম্যূান বা ওয়ারেখটাস।
৩২. গ্রিসের আইন সভার নাম – চেম্বার অব ডেপুটিজ।
৩৩. আইসল্যান্ডের আইন সভার নাম – আলথিং।
৩৪. ইন্দোনেসিয়ার আইন সভার নাম – পিপল্স কনসাল্টেটিভ অ্যাসেম্বলি।
৩৫. উত্তর কোরিয়ার আইন সভার নাম – সুপ্রিম পিপল্স অ্যাসেম্বলি।
৩৬. জায়ারের আইন সভার নাম – ন্যাশনাল লেজিসলেটিভ কাউন্সিল।
৩৭. দক্ষিণ আফ্রিকার আইন সভার নাম – হাউজ অব অ্যাসেম্বলি।
৩৮. নিইজিল্যান্ডের আইন সভার নাম – হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভ।
৩৯. মায়ানমারের আইন সভার নাম – পিথু ইটার্ড।
৪০. লিথুনিয়ার আইন সভার নাম – সিসাম।
৪১. লিবিয়ার আইন সভার নাম – জেনারেল পিপল্স কংগ্রেস।
৪২. সিরিয়ার আইন সভার নাম – পিপল্স কাউন্সিল।
৪৩. রুমানিয়ার আইন সভার নাম – গ্রান্ড ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি।
৪৪. হাইতির আইন সভার নাম – চেম্বর অব ডেপুটিজ সিনেট।
৪৫. হাইতির আইন সভার নাম – চেম্বর অব ডেপুটিজ সিনেট।
৪৬. হাঙ্গেরির আইন মভার নাম – ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি।
৪৭. সেসেলসের আইন সভার নাম – পিপল্স কাউন্সিল।
৪৮. সুইজারল্যান্ডের আইন সভার নাম – ফেডারেল অ্যাসেম্বলি।
৪৯. ব্রাজিল এর আইন সভার নাম – ন্যাশনাল কংগ্রেস।
৫০. গ্রানাডার আইন সভার নাম – হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভ।
৫১. কেপভার্দের আইন সভার নাম – পিপল্স ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি।









         




Thursday, 6 June 2019

Establishment of banks in India



🍁 Bank of India = 1770
🍁 Allahabad Bank = 1865
🍁 Awadh Cummersil Bank = in 1881
🍁 Punjab National Bank = 1894
🍁 Canara Bank = 1906
🍁 Bank of India = 1906
🍁 Corporation Bank = 1906
🍁 Indian Bank = 1907
🍁 Punjab and Sindhi Bank = 1908
🍁 Bank of Baroda = 1908
🍁 Central Bank of India = 1 911
🍁 Union Bank of India = 1919
🍁 Imperial bank = in 1921
🍁 Andhra Bank = Syndicate Bank in 1923 = in 1925
🍁 Vijaya Bank = in 1931
🍁 Reserve Bank Of India = 1 935
🍁 Bank of Maharashtra = 1 935
🍁 Indian Overseas Bank = in 1937
🍁 Dena Bank = in 1938
🍁 Oriental Bank of Commerce = in 1943
🍁 UCO bank = in 1943
🍁 United Bank of India = 1950
🍁 State Bank of India = 1955
🍁 ICICI Bank = 1994
🍁 HDFC Bank = in 1994
🍁 IDBI Bank = in 1964
🍁 Axis Bank = 2007

Thursday, 9 May 2019

পূর্ণ রূপ



🎀 ***********************************🎀
১। GPA - এর পূর্ণরূপ—Grade point Average
২। J.S.C - এর পূর্ণরূপ — Junior School Certificate.
৩। J.D.C - এর পূর্ণরূপ — Junior Dakhil Certificate.
৪। S.S.C - এর পূর্ণরূপ — Secondary School Certificate.
৫। H.S.C - এর পূর্ণরূপ — Higher Secondary Certificate.
৬। A.M - এর পূর্ণরূপ — Ante meridian.
৭। P.M - এর পূর্ণরূপ — Post meridian.
৮। B. A - এর পূর্ণরূপ — Bachelor of Arts.
৯। B.B.S - এর পূর্ণরূপ — Bachelor of Business Studies.
১০। B.S.S - এর পূর্ণরূপ — Bachelor of Social Science.
---
১১। B.B.A - এর পূর্ণরূপ — Bachelor of Business Administration
১২। M.B.A - এর পূর্ণরূপ — এর পূর্নরূপ — Masters of Business Administration.
১৩। B.C.S - এর পূর্ণরূপ — Bangladesh Civil Service.
১৪ । M.A. - এর পূর্ণরূপ — Master of Arts.
১৫। B.Sc. - এর পূর্ণরূপ — Bachelor of Science.
১৬। M.Sc. - এর পূর্ণরূপ — Master of Science.
১৭। B.Sc. Ag. - এর পূর্ণরূপ — Bachelor of Science in Agriculture .
১৮। M.Sc.Ag.- এর পূর্ণরূপ — Master of Science in Agriculture.
১৯ । M.B.B.S. - এর পূর্ণরূপ — Bachelor of Medicine, Bachelor of Surgery.
২০। M.D. - এর পূর্ণরূপ — Doctor of Medicine./ Managing director.
-----
২১। M.S. - এর পূর্ণরূপ — Master of Surgery.
২২। Ph.D./ D.Phil. - এর পূর্ণরূপ — Doctor of
Philosophy (Arts & Science)
২৩। D.Litt./Lit. - এর পূর্ণরূপ — Doctor of
Literature/ Doctor of Letters.
২৪। D.Sc. - এর পূর্ণরূপ — Doctor of Science.
২৫। B.C.O.M - এর পূর্ণরূপ — Bachelor of
Commerce.
২৬। M.C.O.M - এর পূর্ণরূপ — Master of
Commerce.
২৭। B.ed - এর পূর্ণরূপ — Bachelor of education.
২৮। Dr. - এর পূর্ণরূপ — Doctor.
২৯। Mr. - এর পূর্ণরূপ — Mister.
৩০। Mrs. - এর পূর্ণরূপ — Mistress.
-----
৩১। M.P. - এর পূর্ণরূপ — Member of Parliament.
৩২। M.L.A. - এর পূর্ণরূপ— Member of Legislative Assembly.
৩৩। M.L.C - এর পূর্ণরূপ — Member of Legislative Council.
৩৪। P.M. - এর পূর্ণরূপ — Prime Minister.
৩৫। V.P - এর পূর্ণরূপ — Vice President./ Vice Principal.
৩৬। V.C- এর পূর্ণরূপ — Vice Chancellor.
৩৭। D.C- এর পূর্ণরূপ— District Commissioner/ Deputy Commissioner.
৩৯। S.P- এর পূর্ণরূপ — Superintendent of police
৪০। S.I - এর পূর্ণরূপ — Sub Inspector( of Police.)

Thursday, 25 April 2019

PSC SPECIAL


❑প্রশ্ন: কাজের একক কী?
☞ উত্তর: জুল।
❑প্রশ্ন: সিলিন্ডারের ব্যাস মাপা যায়
কিসের সাহায্যে?
☞ উত্তর: স্লাইড ক্যালিপার্স।
❑প্রশ্ন: শক্তির মাত্রা কী?
☞ উত্তর: ML2T-2
❑প্রশ্ন: ত্বরণের মাত্রা কী?
☞ উত্তর: LT-2
❑প্রশ্ন: ঘনত্বের মাত্রা কী?
☞ উত্তর: MLT-3
❑প্রশ্ন: দৈর্ঘ্যের একক কী?
☞ উত্তর: মিটার।
❑প্রশ্ন: চাপের একক কী?
☞ উত্তর: প্যাসকেল।
❑প্রশ্ন: তড়িৎপ্রবাহের একক কী?
☞ উত্তর: অ্যাম্পিয়ার।
❑প্রশ্ন: তাপমাত্রার একক কী?
☞ উত্তর: কেলভিন।
❑প্রশ্ন: তাপের একক কী?
☞ উত্তর: জুল।
❑প্রশ্ন: পদার্থের জড়তার পরিমাপ কী?
☞ উত্তর: ভর।

❑প্রশ্ন: নিউটন গতিসূত্র প্রকাশ করেন কত সালে?
☞ উত্তর: ১৬৮৭ সালে।
❑প্রশ্ন: ভরবেগ P-এর মাত্রা সমীকরণ কী?
☞ উত্তর: [P]=[MLT-1] ।
❑ প্রশ্ন: রকেট উৎক্ষেপণের ক্ষেত্রে
কোন সূত্র
কাজ করে?
☞ উত্তর: নিউটনের তৃতীয় সূত্র তথা ভরবেগের
সংরক্ষণ সূত্র।
❑ প্রশ্ন: বেগ ও দ্রুতির একক কী?
☞ উত্তর: ms-1
❑ প্রশ্ন: বেগ ও দ্রুতির মাত্রা কী?
☞ উত্তর: [LT-1]
❑ প্রশ্ন: দ্রুতি কী?
☞ উত্তর: বস্তুর বেগের মান।
❑ প্রশ্ন: বেগ কী?
☞ উত্তর: নির্দিষ্ট দিকে দ্রুতিই বেগ।
❑ প্রশ্ন: মন্দন কী?
☞ উত্তর: সরল পথে চলমান বস্তুর সময়ের সঙ্গে
বস্তুর
বেগ হ্রাসই মন্দন।
❑ প্রশ্ন: ফিলোসোফিয়া ন্যাচারালিস
প্রিন্সিপিয়া ম্যাথমেটিকা গ্রন্থটির লেখক
কে?
☞ উত্তর: স্যার আইজাক নিউটন।
❑ প্রশ্ন: মহাকর্ষীয় ধ্রুবক (G)-এর মান কত?
☞ উত্তর: ৬.৬৭৩১০১১Nm2kg-2
❑ প্রশ্ন: মহাকর্ষ ধ্রুবক G-এর একক কোনটি?
☞ উত্তর: Nm2kg-2
❑ প্রশ্ন: পড়ন্ত বস্তুর সূত্র আবিষ্কার করেন কে?
☞ উত্তর: গ্যালিলিও।
❑ প্রশ্ন: কোথায় অভিকর্ষজ ত্বরণ ‘g’-এর মান
সবচেয়ে বেশি?
☞ উত্তর: মেরু অঞ্চলে।

❑ প্রশ্ন: কোনো বস্তুর ওজন কোথায় বেশি
হয়?
☞ উত্তর: মেরু অঞ্চলে।
❑ প্রশ্ন: পৃথিবীর কেন্দ্রে বস্তুর ওজন কত?
☞ উত্তর: শূন্য (০) ।
❑ প্রশ্ন: বস্তুর মৌলিক ধর্ম কী?
☞ উত্তর: ভর।
❑ প্রশ্ন: মহাকর্ষ কী?
☞ উত্তর: মহাবিশ্বের যেকোনো দুটি বস্তুর
মধ্যে
যে আকর্ষণ তাকে মহাকর্ষ বলে।
নিউটনের মহাকর্ষ তত্ত্ব
❑ প্রশ্ন: পৃথিবীর কেন্দ্রে অভিকর্ষজ
ত্বরণের (g)
মান কত?
☞ উত্তর: শূন্য (০) ।
❑ প্রশ্ন: কোনো বস্তুর অভিকর্ষ কেন্দ্র কয়টি?
☞ উত্তর: একটি।
❑ প্রশ্ন: মহাশূন্যে পাঠানো প্রথম উপগ্রহ
কোনটি?
☞ উত্তর: স্পুটনিক-১।
☆ মিনামাটা রোগ কোন ধাতুর কারনে হয় ? : পারদ
☆ ব্ল্যাক ফুট ডিজিজ কোন ধাতুর কারনে হয় ? : অার্সেনিক
☆ ফ্লুরোসিস রোগ কেন হয় ? : ফ্লোরাইড দুষন
☆ কালো ফুসফুস রোগ কাদের হয় ?: কয়লা কারখানার শ্রমিকদের ।
☆প্রধান গ্রীন হাউস গ্যাস কোনটি ? : কার্বন ডাইঅক্সাইড
☆ জৈব গ্রীন হাউস গ্যাস কোনটি ?: মিথেন
☆ বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশিকা অনুযায়ী আর্সেনিকের নিরাপদ মাত্রা কতো ?? : প্রতি লিটার জলে ০.০১ মিলিগ্রা
☆ মানবদেহে আর্সেনিকের সর্বাধিক সহনসীমা কতো ? : প্রতি লিটার জলে ০.০৫ মিলিগ্রাম ।
☆ওজোনস্তরের ক্ষতির জন্য প্রধান দায়ী কোন গ্যাস ? : ক্লোরোফ্লোরো কার্বন ।
☆ইকোসিস্টেম নামকরন কে করেন ? : ট্যানসলে ।
☆ বিশ্ব আবহাওয়া দিবস কবে পালিত হয় ? : ২৩ শে মার্চ ।
☆ ফ্লাই অ্যাশ এর উতস কি ? : তাপ বিদ্যুত কেন্দ্র ।
☆ ভূ- তাপমাত্রা বৃদ্ধির কারন কি ?: গ্রীন হাউস গ্যাস ।
☆ GIS- এর পুরো নাম কি ?: Geographical Information System .
☆ তৈগা কি ? : পাইন গাছের বনভূমি ।
☆ ভারতে বনভূমির পরিমান কতো ? : ১৯.৩৯%
☆পৃথিবীর প্রথম পরিবেশ বৈঠক কোথায় হয়? : স্টকহোমে।
☆আর্সেনিকোসিস হলো-: জলদুষনের ফল/ আর্সেনিক দুষনের ফল ।
☆ চিপকো শব্দের অর্থ কি ? : জড়িয়ে ধরা।
☆ শব্দের তীব্রতা মাপার একক কি ? : ডেসিবল ।
☆ চিপকো আন্দোলনের মুল দাবী কি ছিল ? : অরণ্য সংরক্ষণের দাবী।
☆টর্নেডো কথাটি কোন দেশের সঙ্গে যুক্ত ?: আমেরিকা ।
☆হ্যারিকেন কোন দেশের ঝড় ? : ওয়েষ্ট ইন্ডিজ।
☆ভূমিকম্প মাপার যন্ত্রের নাম কি ?: সিসমোগ্রাফ।
☆ টাইফুন কি ?: জাপানের ঘূর্ণবাত ।
☆ পশ্চিমবঙ্গে বাঘ্র প্রকল্প আছে- সুন্দরবনে।

☆ ইকোলজি কথার অর্থ- বাস্তুবিদ্যা।
☆বাস্তুতন্ত্রে শক্তির প্রবাহ সর্বদা- একমুখী ।
☆ "ইকোসিস্টেম"- শব্দটির প্রবর্তক- ট্যান্সলি।
☆ কোনো নির্দিষ্ট বাস্তুতন্ত্রের অন্তর্গত জীবের পরিমান বা সর্বমোট সংখ্যাকে বলা হয়- বায়োমাস।
☆দশ শতাংশ সুত্রের প্রবক্তা- লিন্ডেম্যান।
☆জলে ভাসমান আণুবিক্ষনিক জীবদের বলা হয়- প্ল্যাংটন।
☆ উদ্ভিদের বলা হয়- ফাইটোপ্ল্যাংটন।
☆প্রানিদের বলা হয় - জু-প্ল্যাংটন ।
☆ফাইটোপ্ল্যাংটন হলো জলজ বাস্তুতন্ত্রের- উত্পাদক উপাদান ।
☆ যেসব প্রাণী জলে স্বাধীনভাবে সাতার কেটে বেড়ায় তাদের বলে- নেকটন।
☆নেকটনের উদাহরণ- মাছ ও তিমি।
☆ যেসব প্রাণী জলের নীচে বসবাস করেন তাদের বলা হয়- বেনথস।
☆ বেনথসের উদাহরণ- শামুক ও প্রবাল।
☆ পশ্চিমবঙ্গের একটি অভয়ারণ্যের নাম- জলদাপাড়া।
☆ভারতের দুটো লুপ্তপ্রায় প্রাণীর নাম- একশৃঙ্গ গন্ডার ও সিংহ ।
☆ভারতের দুটো বিলুপ্ত প্রাণীর নাম- গোলাপী মাথা হাস ও পাহাড়ি বটের।
☆ ফাইটোপ্ল্যাংটনের উদাহরণ- ক্ল্যামাইডোমেনাস ও ভলবক্স।
☆ জু-প্ল্যাংটনের উদাহরণ- মশার লার্ভা ও ডাফনিয়া।
☆ নাইট্রোজেন স্থিতিকারী ব্যাকটেরিয়া- রাইজোবিয়াম ও ক্লসট্রিডিয়াম।
☆ ডি- নাইট্রিফাইং ব্যাকটেরিয়া- সিউডোমেনাস ও থিওব্যাসিলাস।
☆ বাস্তুতন্ত্রের অন্তর্গত কোনো প্রজাতির জীবের অবস্থান ও তার ভুমিকাকে বলা হয়- ইকোলজিক্যাল নিচ্।
☆ খাদ্য পিরামিড- তিনপ্রকার।
☆"ইতাই-ইতাই" - রোগ কোন ধাতুর কারনে হয়- ক্যাডমিয়াম।

Prisma Theory

Donate with